শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

চীনকে বন্দিশিবির বন্ধের আহ্বান তুরস্কের

আপডেট : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:২৯ এএম

উইঘুর সম্প্রদায়ের স্বনামধন্য গায়ক আবদু রহিম হায়াতের মৃত্যুতে চীনের সব বন্দিশিবির বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে তুরস্ক। বিবিসির গতকাল রবিবারের প্রতিবেদনে বলা হয়, আবদু রহিম প্রায় আট বছর ধরে জিনজিয়াং অঞ্চলের বন্দিশিবিরে ছিলেন। বলা হয়, ওই অঞ্চলের বন্দিশিবিরে উইঘুর সম্প্রদায়ের দশ লক্ষাধিক মানুষ আটক অবস্থায় আছে। এক বিবৃতিতে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, উইঘুররা বন্দিশিবিরে নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হামি অকসয় বলেন, ‘এটা আর কোনো গোপন বিষয় নয় যে ১০ লাখের বেশি উইঘুর গ্রেপ্তারের শিকার হয়ে বন্দিশিবিরে আছে। তারা নির্যাতন ও রাজনৈতিক মগজ ধোলাইয়ের শিকার হচ্ছে। আমরা চীনা কর্র্তৃপক্ষকে মানুষের মানবাধিকারের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আহ্বান জানাই।’ যদিও চীনা কর্র্তৃপক্ষ তুরস্কের এমন দাবিকে ‘সম্পূর্ণভাবে অগ্রহণযোগ্য’ বলেছে। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়, ‘চীন এবং তুরস্ক উভয়েই সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের নামে দ্বৈত চিন্তা করা ঠিক না। আমরা আশা করি তুরস্ক সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে চীনের অবস্থানকে গভীরভাবে অনুভব করবে।’

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের মতে, গায়ক হায়াত বেইজিংয়ে সংগীতের ওপর পড়ালেখা করেন। পরবর্তী সময়ে তিনি জাতীয় আর্টস দলের সদস্য ছিলেন। উইঘুর সম্প্রদায়ের একটি কবিতাকে গানে রূপান্তর করে প্রচারের কারণে তাকে আটক করা হয়।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত