মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

গাইবান্ধায় চারজন শিক্ষক দিয়ে চলছে দুটি বিদ্যালয়

আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৩৯ এএম

তিন মাস ধরে গাইবান্ধা সদর উপজেলার কামারজানী ইউনিয়নের কলমু এফএনসি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুজন শিক্ষক দিয়ে ১৫৪ জন শিক্ষার্থী ও এক মাস ধরে বোয়ালি ইউনিয়নের হরিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুজন শিক্ষক দিয়ে চলছে ২৩৮ জন শিক্ষার্থীর পাঠদান। এই দুই বিদ্যালয়ে শিক্ষক সংকটে ব্যাহত হচ্ছে শিক্ষার্থীদের পাঠদান।

কলমু বিদ্যালয়ে তিনজন শিক্ষকের মধ্যে প্রধান শিক্ষক গত নভেম্বর মাস থেকে মাতৃত্বকালীন ছুটিতে রয়েছেন। আর হরিপুর বিদ্যালয়ে পাঁচজন শিক্ষকের মধ্যে তিনজন রয়েছেন গাইবান্ধা পিটিআইতে প্রশিক্ষণে। হরিপুর বিদ্যালয়ের তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, ‘স্যার আমাদের পড়তে দিয়ে একবার এ রুমে তো আরেকবার অন্য রুমে যান। পড়া বুঝতে না পারলে সময়মতো স্যারকে সামনে পাই না।’ ওই বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রুহুল আমিন বলেন, এই বিদ্যালয়ে পাঠদান করাতে গিয়ে বিপাকে পড়েছেন দুজন শিক্ষক। কলমু বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোস্তফা কামাল বলেন, গত তিন মাস ধরে মাত্র দুজন শিক্ষক দিয়ে পাঠদান করাতে হচ্ছে। একজন দাপ্তরিক কাজে বাইরে গেলে তখন একজন শিক্ষকেই তিন শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পাঠদান করাতে হয়। সদর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুস ছালাম বলেন, যেসব বিদ্যালয়ে শিক্ষকের স্বল্পতা রয়েছে, সেখানে নতুন শিক্ষক দেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত