মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

পিটিয়ে-পুড়িয়ে হত্যা

প্রাথমিক তদন্তে ধর্ম অবমাননার প্রমাণ মেলেনি

আপডেট : ০২ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৫৯ এএম

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারীতে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে মানসিক অসুস্থ আবু ইউনুস মো. শহিদুন্নবী জুয়েলকে (৫০) পিটিয়ে ও পরে আগুনে পুড়িয়ে মারার ঘটনায় তদন্তে নেমেছে মানবাধিকার কমিশনের তদন্ত দল। গতকাল রবিবার দুপুরে বুড়িমারী কেন্দ্রীয় বাজার জামে মসজিদ, বুড়িমারী ইউপি কার্যালয়, পুড়িয়ে মারার স্থানসহ সংশ্লিষ্ট এলাকা ঘুরে দেখেন মানবাধিকার কমিশনের অভিযোগ ও তদন্ত বিভাগের পরিচালক আল মাহমুদ ফায়জুল কবিরসহ তিন সদস্যের তদন্ত দল। এ সময় তারা মসজিদের খাদেমসহ স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে কোরআন অবমাননার বিষয়টি অসত্য বলে জেনেছেন।

পরিদর্শন শেষে কমিটির প্রধান মানবাধিকার কমিশনের পরিচালক (অভিযোগ ও তদন্ত) আল মাহমুদ ফায়জুল কবির সাংবাদিকদের বলেন, তিনটি বিষয় মাথায় রেখে আমরা তদন্ত কাজ শুরু করেছি। ওই দু’জন বুড়িমারীতে কেন এসেছিলেন, মসজিদে সংঘটিত ঘটনা সেখানেই কেন মীমাংসা করা হলো না, জনগণকে কারা বিভ্রান্ত করেছিল এই তিনটি প্রশ্ন নিয়েই কাজ শুরু করা হয়েছে। আগামী ৭ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন কমিশনে জমা দেওয়া হবে। তবে তিনি জানান, প্রাথমিক তদন্তে প্রতীয়মান হয়েছে কোরআন অবমাননার বিষয়টি অসত্য।

এর আগে গত শনিবার রংপুর বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল ওহাব ভূঁইয়া, রংপুর পুলিশের ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্যসহ জেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলার বিভিন্ন মসজিদের  ইমাম, মোয়াজ্জেম ও ধর্মীয় নেতাদের সঙ্গে তারা এক বৈঠকে মিলিত হন।

ঘটনা তদন্তে লালমনিরহাট জেলা প্রশাসনও তিন সদস্যবিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। লালমনিরহাটের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট টিএমএ মমিনকে তদন্ত কমিটির প্রধান করা হয়েছে। কমিটি আগামী তিন কর্ম দিবসের মধ্যে (আগামী মঙ্গলবার) প্রতিবেদন জমা দিতে পারে বলে জানা গেছে। এছাড়াও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা তদন্ত করছে।

 এ ঘটনায় নিহতের পরিবার থেকে একটি হত্যা মামলা, বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদ ভাংচুর ও লুটপাটের একটি এবং পুলিশকে সরকারি কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে আরও একটি মামলা হয়েছে। 

পাটগ্রাম থানার ওসি সুমন কুমার মোহন্ত দেশ রূপান্তরকে বলেন, রবিবার দুপুরে গ্রেপ্তার ৫ জনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার রাতে বুড়িমারীতে কোরআন অবমাননার অভিযোগ তুলে আবু ইউনুস মো. শহিদুন্নবী জুয়েল নামে মানসিকভাবে অসুস্থ এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা করে পরে তার লাশ পুড়িয়ে দেয় স্থানীয়রা। এ ঘটনায় অপর আহত সুলতান জুবায়েদকে বর্তমানে পুলিশি হেফাজতে রেখে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।   

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত