শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

আলোচনা সভায় ফখরুল

আ.লীগ মানুষের বড় শত্রুতে পরিণত হয়েছে

আপডেট : ০৪ অক্টোবর ২০২১, ০৩:৩৪ এএম

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ আজ বাংলাদেশকে যে রাষ্ট্রে পরিণত করেছে, এটি আমাদের রাষ্ট্র নয়। সে জন্য আওয়ামী লীগ আজকে মানুষের সবচেয়ে বড় শত্রুতে পরিণত হয়েছে।

গতকাল রবিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ওলামা দলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমাদের মূল লক্ষ্য ছিল আমরা চমৎকার একটা রাষ্ট্র গঠন করব। যে রাষ্ট্রে মানুষের অধিকার থাকবে, যে রাষ্ট্রে মানুষ কথা বলতে পারবে, স্বাধীন সংবাদমাধ্যম থাকবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা যে রাষ্ট্র ও সমাজ চেয়েছিলাম, সেটা হবে একটা মুক্ত সমাজ, গণতান্ত্রিক সমাজ। আর অন্য কোনো দেশের পরাধীন হয়ে থাকা নয়। একটি স্বাধীন সার্বভৌম মুক্ত দেশ আমরা চেয়েছিলাম। এবং সেই লক্ষ্যে আমরা যুদ্ধ করেছিলাম। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমাদের স্বাধীনতাযুদ্ধের পরেও এ দলটি ক্ষমতায় আছে। তারা সেদিনও ক্ষমতায় ছিল। তারা ক্ষমতায় এসে প্রথম যে কাজটি করেছে এ দেশের মেজরিটি মানুষের আশা-আকাক্সক্ষাকে তারা ধূলিসাৎ করে দিয়েছে। তারা এখানে কোনো গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে দেয়নি। যে সংবিধান তৈরি করেছিল, সেটাকে তারা কাটাছেঁড়া করেছে এবং বহুদলীয় গণতন্ত্রকে বাদ দিয়ে একদলীয় শাসনব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করেছে। সেই সময় যারা ভিন্ন মত পোষণ করেছে, তাদের তারা অত্যাচার করেছে, হত্যা করেছে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আজকে দেশে যে সংকট তা পুরো জাতির। অনেকেই বলেন বিএনপির সংকট। সংকটে বিএনপি নয়, সংকট আছে গোটা জাতি। এ কথাটা আমাদের বুঝতে হবে এবং এ কথাটিই মানুষকে বোঝাতে হবে। আজকে গণতন্ত্র নেই, নির্বাচন হয় না, কোনো জবাবদিহি নেই, যে যেখানে পারছে চুরি করছে, ডাকাতি করছে। আইনশৃঙ্খলা বলতে কিছু নেই। এ দেশ তো আমরা চাইনি।’

তিনি বলেন, ‘ইভ্যালিসহ ১০-১২টি প্রতিষ্ঠান মানুষের কাছ থেকে বহু টাকা লুটে নিয়েছে। কিন্তু এটার আগে নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে পারেনি সরকার।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান সংবিধানে বিসমিল্লাহির রহমানির রাহিম যোগ করেছিলেন। তিনি কাজটি করেছিলেন; কারণ শতকরা ৯৫ ভাগ মানুষের যে ধর্মবিশ্বাস, এটিকে মর্যাদা দেওয়ার জন্য। কিন্তু এরা (সরকার) খুতবা পর্যন্ত নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করেছে। আওয়ামী লীগের হাতে কোনো ধর্মই আজ নিরাপদ নয়। তারা নিজেরাই কোনো ধর্মে বিশ্বাস করে না।’

সভায় বক্তব্য দেন ওলামা দলের আহ্বায়ক প্রিন্সিপাল মাওলানা নেসারুল হক, সদস্য সচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা নজরুল ইসলাম তালুকদার, স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, যুগ্ম সচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আব্দুস সালাম, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মো. রহমতুল্লাহ প্রমুখ।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত