মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

১৪ ও ১৮ সালের নির্বাচনে আমি আত্মতৃপ্তি পাই নাই: ধর্মমন্ত্রী

আপডেট : ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০:৫১ পিএম

‘গত ২০০৮ এর পরে ২০১৪ ও ১৮ সালে যে নির্বাচন হলো, আমিই তো আত্মতৃপ্তি পাই নাই’ বলে মন্তব্য করেন ধর্মমন্ত্রী ফরিদুল হক খান দুলাল। রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) জামালপুর জেলার ইসলামপুর উপজেলার চর গোয়ালিনী ইউনিয়নের ডিগ্রীর চর উচ্চ বিদ্যালয়ে আয়োজিত আওয়ামী লীগের কর্মী সমাবেশ তিনি এ কথা বলেন। 

এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘আপনারা অনেকেই ভোট দিছেন আবার অনেকেই অন্য মানুষ দিয়ে ভোট দেওয়াইছেন। কত কিছু করছেন। এটাতে আত্মতৃপ্তি পাওয়া যায় না।’

ধর্মমন্ত্রী দুলাল বলেন, 'আমি যে ভালো নাকি মন্দ আমার জাজ আমিই করতে পারতাছি না। আমি আত্মতৃপ্তি পাই নাই। আল্লাহ এই ভোটটা শান্তি মতো করাইছে। ২০০৮ এ যে রকম ভোট হয়ছিল। এইবারও ওই রকম ভোট হয়েছে।’

এর আগে মন্ত্রী ফরিদুল হক খান দুলাল বলেন, 'এবার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক থাকবো না। আশা করি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন আপনারা নৌকা প্রতীক ছাড়া দেখবেন। আওয়ামী লীগের কে দাঁড়াবে, দাড়াক, বিএনপির কে দাড়াবে, দাঁড়াক, জাতীয় পার্টির কে দাঁড়াবে, দাড়াক। কমপিটিশন হবে। ওইটাই তো নির্বাচন। সবই যদি আমিই পাই, তাহলে খেলা কিসের?’

এ সময় তিনি ইসলামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালামকে আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেন এবং তার পক্ষে ভোট চান।

চর গেয়ালীনী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের  সভাপতি নুর ভক্ত মোল্লা দুদুর সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হালিমের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ধর্মমন্ত্রী ফরিদুল হক খান দুলাল। এছাড়াও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালামসহ ৫ জনকে বিশেষ অতিথি করা হয়। কর্মী সমাবেশে উপজেলা, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশগ্রহণ করেন।

২০১৪ ও ২০১৮ সালের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ধর্মমন্ত্রীর এমন বক্তব্য শুনে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা যায় শ্রোতাদের মাঝে।

এ বিষয়ে কথা বলতে ধর্মমন্ত্রী ফরিদুল হক খান দুলালের মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত