শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

সংবাদ সম্মেলনে রিজভী

ঈদে মানুষ চরম দুর্দশার মাঝে দিন কাটিয়েছে

আপডেট : ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৪৪ এএম

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, বর্তমানে বাজারে আকাশচুম্বী মূল্যস্ফীতির কারণে ভাত-তরকারি জোগাড় করা কষ্টকর। এমন পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষ ঈদে পোশাক কীভাবে কিনবে?’ গতকাল সোমবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ প্রশ্ন রাখেন তিনি।

রিজভী বলেন, ‘আওয়ামী লীগের মন্ত্রী-নেতারা জনগণকে প্রতারিত করে ভাঁওতাবাজির মাধ্যমে মানসিক আশ্রয় খুঁজছেন। দেড় দশক ধরে জনগণের পকেট কাটার কারণে এখন দেশে হাহাকার পড়েছে। অনাহার-অর্ধাহারে ক্ষুধার্ত মানুষ এবারের ঈদে চরম দুর্দশার মাঝে দিন কাটিয়েছে।’

গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, ‘একজন গার্মেন্ট শ্রমিক নিজের শিশুসন্তানের জন্য ফুটপাত থেকে ফ্রক কিনতে পারেননি। চট্টগ্রামের ঈদবাজারে গত বছরের তুলনায় এবার ৩০ শতাংশ কেনাকাটা কমেছে। এ পরিস্থিতি সারা দেশে। ঢাকায় ধনীদের কেনাকাটা বাড়লেও নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির ক্রয়ক্ষমতা কমেছে। কাপড় ব্যবসায়ীরা শাড়ি, লুঙ্গি, পাঞ্জাবি তাদের টার্গেটের অর্ধেকও বিক্রি করতে পারেনি। অনেক ব্যবসায়ী ঈদের আগে বাকিতে কাপড় নিয়ে বিক্রি করার পর তার টাকা পরিশোধ করেন। কিন্তু এখন তাদের কপালে হাত।’

‘দেশে বিত্তশালীদের সংখ্যা বেড়েছে’ আওয়ামী লীগ নেতাদের এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় রিজভী বলেন, ‘এখন প্রশ্ন হচ্ছে এ বিত্তশালী কারা? এই বিত্তশালী শ্রেণি হচ্ছে বেনজীর শ্রেণির যারা বিএনপির অসংখ্য নেতাকর্মীকে গুম-খুন করে প্রধানমন্ত্রীর আশীর্বাদপুষ্ট হয়ে হাজার হাজার কোটি টাকা কামিয়েছেন। এ ছাড়া মেগা প্রজেক্ট ও অবাধে ব্যাংক লুটের কথা এখন কল্পকাহিনিতে পরিণত হয়েছে; যা অতিবাস্তব। এটা বাস্তব সত্য যে, দুর্নীতির সঙ্গে ক্ষমতার ওপরের দিকে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক থাকে। অত্যাচারী শাসকের পদতলে পিষ্ট আজ বাংলাদেশ।’

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত