বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

নিরাপত্তা চান বুয়েটের ছাত্ররাজনীতি প্রত্যাশী ১৫ শিক্ষার্থী

আপডেট : ২৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৩৯ পিএম

সামাজিক অবমাননা ও কালচারাল র‍্যাগিংয়ের প্রেক্ষিতে প্রেরিত অভিযোগের তদন্ত, নিয়মতান্ত্রিক ছাত্ররাজনীতি চালু এবং ক্যাম্পাসে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) নিয়মতান্ত্রিক ছাত্ররাজনীতি প্রত্যাশী ১৫ জন শিক্ষার্থী।

সোমবার (২৯ এপ্রিল) বিকেলে বুয়েট শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে এক সংবাদ সম্মেলনে উপাচার্য বরাবর এ দাবি জানান তারা। বুয়েটে আগামী একাডেমিক কার্যক্রম শুরু হওয়ার আগে দাবি সমূহের বাস্তবায়ন চান তারা।

লিখিত বক্তব্যে শিক্ষার্থীরা জানান, ক্যাম্পাসে বিভিন্ন সময় একটি নির্দিষ্ট গোষ্ঠীর দ্বারা আমরা প্রায়ই অনলাইন ও সরাসরিভাবে হেনস্তা ও অপমানের শিকার হয়েছি। সুনামগঞ্জে আটককৃত ২৪ বুয়েট শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মামলায় আদালতের সুষ্ঠু বিচার চেয়ে গত বছররের ৬ আগস্ট মানববন্ধন করেছিলাম। মানববন্ধনে দাঁড়ানোর কারণে ডিপার্টমেন্টের সিনিয়র ও ব্যাচের শিক্ষার্থীদের দ্বারা সকলকে ডেকে জবাবদিহিতা চাওয়া হয়। ক্যাম্পাসে কিছু মানুষ দ্বারা অসংলঘ্ন আচরণ আমাদের অপমানের সামিল। হলে সিট বাতিল অথবা টার্ম বহিষ্কারের ভীতি প্রদর্শন করে অরিত্র ঘোষ এবং মিশু দত্তকে আনুমানিক রাত ১১টা থেকে ভোর ৪টা পর্যন্ত আহসান উল্লাহ হলের কমন রুমে এবং মাঠে জবাবদিহিতা চাওয়া হয়।

সামাজিকভাবে হেনস্থার কথা উল্লেখ করে তারা বলেন, রাতে একসাথে কাচ্চি খাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এসেছিল বলে মিথ্যাচার করায় আমরা অভিযোগ জানিয়েছিলাম। CSB (Current Students of BUET) নামক একটি ফেসবুক গ্রুপে Anonymous post দিয়ে ভিত্তিহীনভাবে আমাদেরকে অপরাধী বানিয়ে মব জাস্টিস শুরু করে। এ নিয়ে অভিযোগ দিলে প্রশাসন আশ্বাস দিয়ে কোনো রূপ তদন্ত রিপোর্ট বা দোষীদের উপর শান্তি আরোপ করেনি। সামাজিকভাবে আমাদেরকে হেনস্তা করে সব গ্রুপ, ক্লাব ও খেলাধুলা, ডিপার্টমেন্টের অনুষ্ঠানসহ সাংস্কৃতিক অঙ্গন থেকে বের করে দেয়। এক পর্যায়ে আমাদের সাথে স্টাডি ম্যাটেরিয়ালস শেয়ার না করার জন্য ঘোষণা করে একটি দল এবং কেউ যদি না মানে তাকেও হেনস্তা করে হবে এমন হুমকি পর্যন্ত দেওয়া হয়। এই গ্রুপের এডমিন কারা এবংতাদের উদ্দেশ্য খতিয়ে দেখার দাবি জানায় তারা।

শিক্ষার্থীদের পূর্ব অভিযোগ উল্লখ করে তারা বলেন, বুয়েট ক্যাম্পাসে হিজবুত তাহরিরের মতো মৌলবাদী সংগঠন যে সক্রিয় তার সত্যতা বুয়েটের সিসিটিভি ফুটেজ দেয়। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে বিষয়টি তদন্ত করে পরিচয় বের করে ক্যাম্পাস থেকে বের করে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে তুলে দেওয়ার অনুরোধ জানায় তারা। এ ছাড়া টাঙ্গুয়ার হাওরে রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রের সাথে সংযুক্ত মামলায় জামিনে থাকা আসামিদের কেসের নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত সাময়িক বহিষ্কারের দাবি জানায় তারা।

 

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত