সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

কিশোরের পায়ুপথে টয়লেটের ব্রাশ ঢুকিয়ে নির্যাতন

আপডেট : ২০ মে ২০২৪, ০৭:১৭ পিএম

ফেনী ছাগলনাইয়ার তানভির আহমেদ নয়ন (১৩) নামে এক কিশোর ভয়াবহ নির্যাতনের শিকার হয়েছে। রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সোমবার (২০ মে) ভুক্তভোগীর পরিবার বিষয়টি নিয়ে মামলা করেন। গত শনিবার দুপুরে ছাগলনাইয়ার আহমেদ শপিং সেন্টারে এ ঘটনা।

নির্যাতনের শিকার নয়ন ছাগলনাইয়া বাজারের একটি দোকানের কর্মচারী এবং ওই উপজেলার উত্তর জশপুর গ্রামের বাসিন্দা। এ ঘটনায় দোকান মালিক আবু আহমেদ মজুমদারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

কিশোরের বড় ভাই আবদুর রহমান জানান, তার ভাই ছাগলনাইয়া বাজারের একটি দোকানে মাসিক বেতনে কাজ করে। শনিবার দুপুরে বাজারের উত্তর পাশের একটি মসজিদে নামাজ আদায় করতে যায়। নামাজ শেষে ফেরার পথে মাঝ বয়সের অপরিচিত এক লোক তাকে ডাক দেয়। বলেন, দোতলায় একটি বস্তা মাথায় তুলতে তার ভাই যেন সহযোগীতা করে। সরল মনে ওই কিশোর উপকার করার মানসিকতা নিয়ে আহমেদ শপিং সেন্টারের দোতলায় ওঠে। এসময় পেছন থেকে মাঝ বয়সের আরও এক অপরিচিত ব্যক্তি ওঠেন।

ভুক্তভোগী কিশোরের বরাত দিয়ে তার ভাই আরও বলেন, ওই দুই ব্যক্তি তার ভাইকে মারধর করে তিন তলায় নিয়ে যায়। সেখানে একটি টয়লেটে ঢুকিয়ে তার দুই হাত ও মুখ বেঁধে তাকে নগ্ন করে তারা। পরে কিশোরের পায়ু পথে বাথরুম পরিস্কার করার প্লাস্টিকের ব্রাশ ঢুকিয়ে দেয়। এতে মূর্ছা যায় সে। পুরো টয়লেট রক্তে ভেসে যায়। পরে তারা টয়লেটের দরজার বাইরে হুক লাগিয়ে চলে যায়।

কিশোরের ভাই বলেন, তার ভাই প্রায় ঘণ্টাখানেক চেষ্টার পর হাতের বাঁধ খুলতে পারে। এদিকে তার দোকানের মালিক তার নাম্বারে বারবার ফোন দিলেও হাত বাঁধা থাকায় ফোন ধরতে পারেনি। বাধ খোলার পর দোকান মালিকের ফোন ধরে ঘটনা জানায়। পরে দোকান মালিক টয়লেট থেকে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে ছাগলনাইয়া হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখান থেকে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম পাঠানো হয়। রবিবার তার পায়ুপথ থেকে ব্রাশ বের করে চিকিৎসক। ততক্ষণে তার শরীর রক্তশূন্য হয়ে পড়ে।

ছাগলনাইয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান ইমাম জানান, তিনি ঘটনা শুনেছেন। নির্যাতিত কিশোরের মা সোমবার বিকেলে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। ছেলেটা নির্যাতনকারীদের চিনতে পারেনি। তারপরও পুলিশ তদন্ত করছে। অপরাধীদের চিহ্নিত করতে পুলিশ কাজ করছে। এ ঘটনায় দোকান মালিক আবু আহমেদ মজুমদারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত