শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

প্রেয়সীকে সাক্ষাৎকার দিলেন ম্যাচসেরা বুমরা

আপডেট : ১০ জুন ২০২৪, ০৫:৪০ পিএম

সময় নিচ্ছিলেন মোহাম্মদ রিজওয়ান। থিতুও হয়ে গিয়েছিলেন। ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে যাবেন, এমন সময়ই ছোবল জাসপ্রিত বুমরার। তার বলে বোল্ড হয়ে ধরেন ড্রেসিং রুমের পথ। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান মহারণের টার্নিং পয়েন্টটাই ছিল যেন এটা। সেই ম্যাচে ১৪ রান খরচায় ৩ উইকেট শিকার করেছেন বুমরা। পেয়েছেন টানা দুই ম্যাচসেরার পুরস্কার।

খেলা শেষে নিউ ইয়র্কের নাসাউ কাউন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বুমরাকে মুখোমুখি হতে হয় আইসিসি ডিজিটালের প্রেজেন্টার সানজানা গনেশনের। তারা দুজনে আবার সম্পর্কে স্বামী-স্ত্রী। প্রশ্নোত্তর পর্বে ক্রিকেটীয় বিষয়ে সানজানার যাবতীয় প্রশ্নের উত্তর দেন বুমরা। তবে সাক্ষাৎকার পর্বের শেষটা বেশি মনে ধরে নেটিজেনদের।

কেননা এক্ষেত্রে স্বামী-স্ত্রীর পারস্পরিক সম্পর্ক সামনে চলে আসে। সানজানা যখন সাক্ষাৎকারের জন্য বুমরাকে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে প্রথামাফিক তাড়াতাড়ি ফের দেখা হবে বলে মন্তব্য করেন, বুমরা তখন পালটা মন্তব্য করেন যে, আধঘণ্টার মধ্যেই তোমার সঙ্গে দেখা হবে। সানজানাকে শেষে স্বামীর কাছে ডিনারের বিষয়ে খোঁজ নিতেও শোনা যায়।

স্বাভাবিকভাবেই সাক্ষাৎকারের ভিডিওটি আপ্লুত করে নেটিজেনদের। ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করা ভিডিওটি ৯ ঘণ্টায় ৯ লক্ষেরও বেশি লাইক আদায় করে নেয়। রীতিমতো কমেন্টের বন্য বয়ে যায়।

সাক্ষাৎকারে ম্যাচ প্রসঙ্গে বুমরাহ বলেন, ‘দিনটা ভলো কাটল। পিচ বেশ কিছুটা বদলে গেছে। আগের ম্যাচে পিচে আরও বেশি সাহায্য ছিল। তাছাড়া সকালে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন ছিল। পরে রোদ ওঠে এবং পিচ কিছুটা শুকিয়ে যায়। সুতরাং, পরের দিকে ব্যাটিং করা তুলনায় সহজ হয়ে দাঁড়ায়। সিম ও সুইং একটু কমে। তবে ওদের আটকে রাখতে পেরে ভীষণ খুশি। ক্রমাগত চাপ তৈরি করে রান তোলা যতটা সম্ভব কঠিন করাই ছিল প্রধান লক্ষ্য।’

বুমরাহ এও জানান যে, যখনই কোনও জটিলতা দেখা দেয়, দলকে কীভাবে সমস্যা থেকে বার করা যাবে, সেটাঅ তার একমাত্র লক্ষ্য হয়ে দাড়ায়। পাকিস্তান ম্যাচে সেই কাজটা যথাযথ করতে পেরে তৃপ্ত দেখায় বুমরাহকে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত