রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

পুরনো ফোনকে সহজেই বানান সিকিউরিটি ক্যামেরা

আপডেট : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৫:১৯ পিএম

আপনার যদি পুরনো কোন মোবাইল ফোন থেকে থাকে, সেটি ড্রয়ারের কোনায় কানায় ফেলে না রেখে বা বিক্রি করে না দিয়ে সেটি আরও দারুণ কোনো কাজে ব্যবহার যোগ্য করে তুলতে পারেন। যেমন, কম খরচেই ঘরের নিরাপত্তা ক্যামেরা হিসেবে কাজে লাগাতে পারেন এটিকে।

এখন দেখে নিই, সেটি আসলে কীভাবে সম্ভব? প্রথমেই অ্যান্ড্রয়েড ফোনটিতে সিকিউরিটি ক্যামেরা অ্যাপস যুক্ত করুন। অনেক ধরনের অ্যাপসই পাওয়া যায়। যে কোনো একটি ইনস্টল করলেই হবে। অধিকাংশ অ্যাপসেই একই ধরনের ফিচার থাকে। যেমন, লোকাল স্ট্রিমিং, ক্লাউড স্ট্রিমিং, রেকর্ডিং এবং স্টোরিং ফুটেজ, মোশন ডিরেকশান এবং এলার্ট সিস্টেম।

এখন পুরনো ফোনটি বাসায় যে কোনো স্থানে সেট করুন। সেইসঙ্গে চালু করে দিন সিকিউরিটি ক্যামেরা অ্যাপস। এরপর আপনি যে কোনো জায়গায় থেকেই আপনার মোবাইল ফোন থেকে দেখতে পারবেন বাসায় কী হচ্ছে বা হচ্ছে না।

অ্যাপস ছাড়া সবচেয়ে কার্যকরী উপায় হচ্ছে ফোনের মধ্যেই একটি সিকিউরিটি ক্যামেরা যুক্ত করে দিলে। এ জন্য আলফ্রেডই হচ্ছে সবচেয়ে উপযুক্ত। তাহলে আপনার সেই পুরনো ফোনটি কি অ্যান্ড্রয়েড নাকি আইফোন সেটি নিয়ে আর ঝামেলা পোহাতে হবে না।

আলফ্রেডের মাধ্যমে সহজেই সব কিছু নিয়ন্ত্রণ করা যায়। আপনার হাতের মোবাইলে লাইভ সবকিছু দেখতে পারবেন পুরনো সেই মোবাইল থেকে। অ্যালার্টের সঙ্গে মোশন ডিরেকশান, ফ্রি ক্লাউড স্টোরেজ, দুই দিকেই অডিও ফিড এবং সামনে-পেছনে দুইদিকেই ক্যামেরা, এসব সুবিধা সহজেই পাবেন। এছাড়াও হাই রেজুলেশন ভিউ, রেকর্ডিং, জুমিং, এড রিমোভালও আছে এতে।

অতএব আলাদাভাবে সিকিউরিটি ক্যামেরা না কিনে বা যুক্ত করেও আপনি পুরনো মোবাইলকে এ কাজে লাগাতে পারেন খুব সহজে। একাধিক পুরনো মোবাইল থাকলে বাসার একাধিক স্থানে যুক্ত করে দিতে পারেন।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত