রোববার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

দর্শকের পছন্দে কাজ করেন নাদিয়া

আপডেট : ১২ মার্চ ২০১৯, ১০:১০ পিএম

এ সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী সালহা খানম নাদিয়া। হাঁটি হাঁটি পা পা করে এক দশক পার করে দিয়েছেন অভিনয় জগতে। যত দিন যাচ্ছে তার চলার গতি আরও দুরন্ত হচ্ছে। এখন মাসের বেশিরভাগ দিনই কাটে শ্যুটিং স্পটেই। নিজের জন্য সময় বের করার ফুরসতই মেলে না তার।

যখন কথা হয় নাদিয়া তখন কক্সবাজারে বাংলাভিশনের ঈদ অনুষ্ঠানমালায় প্রচারের জন্য নির্মিত ৬ পর্বের নাটকের শ্যুটিং করছিলেন। সাগর জাহান পরিচালিত এই নাটকের নাম ‘থ্রি টু ওয়ান জিরো অ্যাকশন’। এতে তার বিপরীতে আছেন জনপ্রিয় অভিনেতা মোশাররফ করিম। আর অভিনয় করেছেন আরফান আহমেদ, প্রাণ রায়, রোবেনা রেজা জুই, ফজলুর রহমান বাবু প্রমুখ। নাম শুনেই বোঝা যাচ্ছে, এই নাটকের গল্প সিনেমার শ্যুটিংকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে। এতে নাদিয়া নায়িকা হওয়ার জন্য স্ট্রাগল করতে থাকেন। মোশাররফ করিম আসেন একটি বোবা মানুষের চরিত্রে কাজ করতে।

নাদিয়া বলেন, ‘আমি এমনিতেও খ- নাটকের কাজ বেশি করি। এখন তো ঈদেও নাটকের কাজ শুরু হয়ে গেছে। তাই খ- নাটকেই এখন বেশি ব্যস্ত থাকতে হবে। অনেকগুলো শর্টফিল্ম করছি। মিউজিক ভিডিও করা হচ্ছে বেছে বেছে। নতুন বিজ্ঞাপনে মডেল হয়েছি। আর ধারাবাহিক নাটক তো আছেই। সব মিলিয়ে ব্যস্ততার মধ্যে আছি। এই ব্যস্ততা আমি উপভোগ করি। অভিনয়ে আমার এক দশক পূর্ণ হলো। সব সময় আমি দর্শকের ভালোবাসা পেয়ে এসেছি। তাই নির্মাতারা আমার ওপর ভরসা করতে পারেন। আমিও মনপ্রাণ উজাড় করে দর্শকের জন্য কাজ করি। যতদিন দর্শক এই ভালোবাসা প্রদর্শন করবে, আমি ততদিন কাজ করে যেতে চাই।’ 

নাদিয়া অভিনীত বেশ কিছু ধারাবাহিক নাটক প্রচার হচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে সাগর জাহানের ‘টি টুয়েন্টি’, সঞ্জিত সরকারের ‘চিটিং মাস্টার’, সাগর জাহানের লেখা ও রতন-আকাশের পরিচালনায় ‘আক্কেলগঞ্জ হোম সার্ভিস’ এবং কালাম আজাদের ‘টুইন ভিলেজ’ ধারাবাহিকগুলো। দীপ্ত টিভির নতুন ধারাবাহিক ‘জলপুত্র’তে একেবারেই ভিন্নধর্মী একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন নাদিয়া। পারভেজ আমিন পরিচালিত এই ধারাবাহিকে নাদিয়াকে একটি জেলেপল্লীর মেয়ের চরিত্রে দেখা যাবে।

তিনি বলেন, ‘দর্শক যে ধরনের কাজে আমাকে পছন্দ করেন সে ধরনের কাজই বেশি করি। এই যেমন আমার টিকটক ভিডিওগুলো দর্শক দারুণভাবে গ্রহণ করছে। তাই তাদের কথা ভেবেই নিয়মিত টিকটক ভিডিও করছি। তবে অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে ভাঙতে নানা ধরনের গল্পে কাজ করতে ইচ্ছে হয়। জেলেপল্লীর মেয়ের চরিত্রটি তেমনই। চরিত্রটি বেশ চ্যালেঞ্জিং।’

জলপুত্রর গল্প নিয়ে নাদিয়া বলেন, ‘নদীভাঙন নিয়ে এর গল্প। আমরা কুয়াকাটায় শ্যুটিং করেছি। এখানে আমার বিপরীতে আছেন রওনক হাসান। ভাইয়ের চরিত্র করেছেন মাজনুন মিজান।’

গুণী সব অভিনয়শিল্পীদের সঙ্গে কাজ করতে আলাদা চাপ অনুভব করেন কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘প্রথমে আমার হাত-পা কাঁপতে শুরু করে। এরপর তারা আমাকে এত চমৎকারভাবে আপন করে নেন যে ভয় পালিয়ে যায়। আমার আজকের এই পর্যায়ে আসার পেছনে সিনিয়র শিল্পীদের অবদান অনেক। তারা আমাকে ধরে ধরে শিখিয়েছেন।’      

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত