মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

সাভারে তেলের লরি উল্টে আগুন, দুর্ঘটনার তদন্ত করবে পুলিশ

আপডেট : ০৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:১৪ পিএম

সাভারে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের জোরপুল এলাকায় তেলের লরি উল্টে অগ্নিকাণ্ডে আশপাশে থাকা আরও চারটি গাড়ি আগুনে পুড়ে যায়। এসব গাড়িতে থাকা দগ্ধ ব্যক্তিদের মধ্যে এখন পর্যন্ত চার জনের মৃত্যু হয়েছে। সড়কে নির্মাণকাজের জন্য রাখা সিমেন্টেরে পিলারের কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা।

এ বিষয়ে সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের গাফিলতির বিষয়ে জানতে চাইলে হাইওয়ে পুলিশ প্রধান শাহাবুদ্দিন খান বলেন, সামগ্রিকভাবে বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে, এখানে কার, দায় কতটুকু ছিল। বৃহস্পতিবার দুপুরে সাভারের বাইপাইল ত্রিমোড় এলাকা পরিদর্শনে এসে ভয়াবহ দুর্ঘটনার বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

দুর্ঘটনাস্থলে কোনো সাইন ও মার্কিং না থাকা প্রসঙ্গে সমন্বয়হীনতা আছে কি না এবং তাদের কোনো গাফিলতি দেখছেন কি না এসব বিষয়ে জানতে চাইলে হাইওয়ে পুলিশ প্রধান বলেন, ‘আমাদের সঙ্গে ভালো সমন্বয় আছে। আমরা যারা সরকারি কর্মচারী, বিভিন্ন ডিপার্টমেন্টে কাজ করি, একযোগেই কাজ করি। সড়ক নিরাপত্তা, মানুষের নিরাপত্তার জন্য কাজ করি। তবে দুর্ঘটনা যেকোনো মুহূর্তে হতেই পারে।’

সওজ কি এ দুর্ঘটনার দায় এড়াতে পারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটি তদন্তের বিষয়। তদন্ত করলে যেকোনো একপক্ষের ওপর হঠাৎ করে দায় দিতে পারি না। সামগ্রিকভাবে বিষয়টি তদন্ত করে দেখব এখানে কার দায় কতটুকু ছিল। এ জন্য মামলা হয়েছে। তদন্ত হবে। আমরা তদন্ত শেষ হলে বলতে পারব।

হাইওয়ে পুলিশের এই প্রধান বলেন, ‘রাস্তার একটা পরিস্থিতি থাকে, অনেক কিছু থাকে। সেগুলো মাথায় রেখেই আমাদের যান চলাচল করতে হবে। যে সড়কে নির্মাণকাজ চলছে, সেখানে কিছু প্রতিবন্ধকতা থাকবে, নির্মাণসামগ্রী থাকবে, সেগুলো মাথায় রেখেই কিন্তু আমাদের গাড়ি পরিচালনা করতে হবে। যেখানে নির্মাণকাজ চলে এর জন্য কিন্তু একটা নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা থাকে। সেটা আমরা দপ্তর থেকে ব্যবস্থা নিই। সেই বিষয়গুলো সমন্বয় করার চেষ্টা করছি। এগুলো সংশ্লিষ্ট বিভাগকে আমরা বলব। ভবিষ্যতে যাতে এই জিনিসগুলো আরও উন্নত হয়।’

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত