মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

গরমে যেসব খাবারে অতিরিক্ত ঘাম হয়

  • কিছু মানুষ রয়েছে যারা অন্যান্যদের তুলনায় বেশি ঘামেন, একদম ভিজে যান
  • অতিরিক্ত ঘামের পেছনে থাকতে পারে কিছু কারণ, বিশেষ করে দায়ী হতে পারে খাদ্যাভ্যাস।
আপডেট : ০২ মে ২০২৪, ১১:৫৩ এএম

তীব্র তাপদাহে নাজেহাল দেশবাসী। সকাল থেকেই সূর্যের তেজের কারণে বাইরে বেরোনো যেন দায় হয়ে পড়েছে। আর এই গনগনে রোদে বের হলেই ঘেমে-নেয়ে একাকার অবস্থা হচ্ছে সবার।

তাপমাত্রার পরিমাণ এতটাই বেশি যে রাস্তায় হাঁটতে গিয়েও ঘেমে অস্থির হয়ে যাচ্ছেন অনেকেই। অনেক সময় পাখার নীচে বসেও ঘাম হচ্ছে।

তবে কিছু মানুষ রয়েছে যারা অন্যান্যদের তুলনায় বেশিই ঘেমে থাকেন। এর পেছনে থাকতে পারে কিছু কারণ। বিশেষ করে দায়ী হতে পারে খাদ্যাভ্যাস।

কিছু খাবার রয়েছে যেগুলো অতিরিক্ত ঘামের কারণ হতে পারে। চলুন জেনে নেই খাবারগুলো সম্পর্কে।

১. কফি

অনেকেরই দিন শুরু হয় কফি দিয়ে, নয়ত দিন চাঙ্গা কাটে না। কিন্তু পুষ্টিবিদের মতে, এই গরমে ক্যাফেইনযুক্ত পানীয়তে রাশ টানা জরুরি। ক্যাফেইন শরীরের অ্যাড্রিনাল গ্রন্থিগুলোকে পুনরুজ্জীবিত করতে পারে। এটি হাতের তালু, পা এবং আন্ডারআর্মের ঘাম বাড়িয়ে দেয়। আর তাই অতিরিক্ত ঘাম এড়াতে কফির কাপে পরিমিতভাবে চুমুক দেওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ।

২. তেলে ভাঁজা এবং মসলাদার খাবার

গরমের ক্লান্তি কাটাতে মাঝেমাঝে একটু মুখরোচক ভাজাভুজি খেলে মন্দ লাগে না। তবে ডুবো তেলে ভাজা খাবার বেশি খেলে ঘাম হতে থাকে অনবরত। তবে ঝাল, মসলাদার খাবার আপনার শরীরের তাপমাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে। এগুলো স্বেদগ্রন্থিগুলিকে উত্তেজিত করে সক্রিয় করে তোলে। তখন ঘাম বেশি হয়।

৩. অতিরিক্ত চিনিযুক্ত খাবার

রোদে বেরোলেই মিষ্টি খাবার খাচ্ছেন? বেশি চিনি যুক্ত খাবার খাওয়া, স্বাভাবিকের চেয়েও বেশি ঘামের কারণ হতে পারে। ওয়েবএমডির মতে, অতিরিক্ত চিনিযুক্ত খাবার খাওয়ার ফলে শরীর অতিরিক্ত পরিমাণে ইনসুলিন তৈরি করে। ইনসুলিনের এই আকস্মিক বৃদ্ধির ফলে রক্তে শর্করার মাত্রা কমে যেতে পারে, এটি হাইপোগ্লাইসেমিয়া নামে পরিচিত। তাই গরমে বেশি চিনিযুক্ত খাবার এড়িয়ে চলুন।

৪. অ্যালকোহল

অ্যালকোহলও কিন্তু ঘামের উৎপাদন বাড়াতে ভূমিকা রাখে। হেলথলাইনে উল্লিখিত, অত্যাধিক অ্যালকোহল গ্রহণ পেরিফেরাল রক্তনালীগুলোকে প্রশস্ত করে, যা আপনার শরীরে ঘামের সৃষ্টি করে। তাই অ্যালকোহল এড়িয়ে চলতে হবে।

৫. কোমল পানীয়

এই গরমে অনেকেই ঠান্ডা কোমল পানীয়তে চুমুক দিয়ে প্রশান্তি অনুভব করেন। বিশেষ করে রাস্তায় বের হলেও কোমল পানীয় ছাড়া চলে না। কোমল পানীয় কখনোই শরীরের জন্য ভালোা নয়। অতিরিক্ত চিনি থাকার কারণে এটি রক্তে শর্করার মাত্রার ওঠানামার কারণ হতে পারে, সেখান থেকে দেখা দেয় ঘাম।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত