বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

নির্ভরযোগ্য ইন্টারনেট সংযোগ সম্প্রসারণে সিডিনেটকে ইউএসটিডিএ-এর অনুদান অনুমোদন

আপডেট : ২১ মে ২০২৪, ০৬:১০ পিএম

ইউএস ট্রেড অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট এজেন্সি বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল সাবমেরিন ক্যাবল (বাঘা-১) এর উন্নয়নের মাধ্যমে সারা বাংলাদেশে নির্ভরযোগ্য ইন্টারনেট সংযোগ সম্প্রসারণের জন্য মঙ্গলবার বাংলাদেশী টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি সিডিনেট কমিউনিকেশনস লিমিটেডকে (সিডিনেট) একটি সমীক্ষা অনুদান অনুমোদন করা হয়েছে। সাব-সি ক্যাবল শহর ও গ্রামীণ উভয় ক্ষেত্রেই সক্ষমতা বাড়াবে এবং ইন্টারনেট সেবার মান উন্নত করবে। সিডিনেট ফ্লোরিডা-ভিত্তিক এপি টেলিকম এলএলসি-কে সমিক্ষা পরিচালনা করার জন্য নির্বাচিত করেছে।

ইউএসটিডিএ এবং সিডিনেট ষষ্ঠ ইন্দো-প্যাসিফিক বিজনেস ফোরামে এই চুক্তি স্বাক্ষর করে। সেখানে ফিলিপাইনের রাষ্ট্রপতি ফার্দিনান্দ রোমুয়াল্ডেজ মার্কোস জুনিয়র মূল বক্তব্য প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানে ইউএসটিডিএ-এর পরিচালক এনোহ টি. ইবং বলেন, 'ইন্দো-প্যাসিফিক জুড়ে, ইউএসটিডিএ-সিডিনেট-এর মতো অংশীদারদের সাথে সাব-সি ক্যাবল প্রকল্পগুলির একটি পোর্টফোলিও তৈরি করছে যারা বিশ্বস্ত সাব-সি ফাইবার অপটিক কেবল সিস্টেমের মাধ্যমে তাদের দেশের ব্রডব্যান্ড ক্ষমতা প্রসারিত করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ৷'

 তিনি আরও বলেন, 'আমাদের এজেন্সি একটি অংশীদারিত্ব-ভিত্তিক ইকোসিস্টেম তৈরি করতে সাহায্য করে যা প্রকল্পের বিকাশকারী, মার্কিন বেসরকারী খাত, মার্কিন সরকারী সংস্থা, আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং সমমনা ইন্দো-প্যাসিফিক অংশীদারদের সম্পদ এবং ক্ষমতাকে কাজে লাগায় যারা প্রকল্পের সাফল্যের জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বাঘা-১।'

সাব-সি কেবলগুলি বিশ্বব্যাপী যোগাযোগে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বাস্তবায়িত হলে, বাঘা-১ কেবলটি বাংলাদেশের ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের জন্য উপলব্ধ ব্যান্ডউইথ বৃদ্ধি করবে, যা নিরাপদ উচ্চ-গতির ইন্টারনেট সংযোগ প্রসারিত করতে এবং দেশের গুরুত্বপূর্ণ ডিজিটাল অবকাঠামোর স্থিতিস্থাপকতা বাড়াতে সাহায্য করবে। ইউএসটিডিএ-এর গবেষণা বাংলাদেশে একটি বিশ্বস্ত সাবসি ক্যাবল সিস্টেম স্থাপনের জন্য সবচেয়ে কৌশলগত পথ চিহ্নিত করার বিকল্পগুলি মূল্যায়নে সিডিনেট-কে সহায়তা করবে।

উক্ত অনুষ্ঠানে সিডিনেট-এর পরিচালক এবং বাংলাদেশের বিশিষ্ট শিল্পোদ্যোক্তা ড. চৌধুরী নাফিজ সরাফাত বলেন,  'বাঘা-১ বিশ্বের সাথে বাংলাদেশের নির্ভরযোগ্য এবং বিশ্বস্ত সংযোগকে শক্তিশালী করতে সাহায্য করবে এবং ৫জি পরিষেবা, আন্তর্জাতিক ডেটা সেন্টার এবং আন্তর্জাতিক হাইপারস্কেলারের জন্য উদীয়মান ডিজিটাল পরিষেবাগুলির জন্য ব্যাপক সুযোগগুলি আনলক করবে।'

তিনি আরও বলেন, 'বাংলাদেশের জন্য আরও সংযুক্ত এবং সমৃদ্ধ ভবিষ্যতের দিকে এই যাত্রার অংশ হতে পেরে আমরা গর্বিত।'

বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাস বলেছেন, 'ইউএসটিডিএর সম্ভাব্যতা সমীক্ষা বাংলাদেশের জনগণের জন্য উন্নত ইন্টারনেট অ্যাক্সেস এবং গুণমানের ভিত্তি স্থাপন করবে। আমরা একটি মার্কিন ব্যবসায়কে সমর্থন করতে পেরে গর্বিত, একজন বাংলাদেশির সঙ্গে অংশীদারিত্বে, আরও সংযুক্ত বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্য।'

ইউএসটিডিএ-এর কার্যক্রম বাইডেন-হ্যারিস প্রশাসনের অগ্রাধিকারের লক্ষ্যগুলিকে যেমনটি  এগিয় নেয় তেমনি বৈশ্বিক অবকাঠামো এবং বিনিয়োগের জন্য অংশীদারিত্ব, ডিজিটাল সংযোগ এবং সাইবার নিরাপত্তা অংশীদারিত্ব এবং সমৃদ্ধি প্রকল্প প্রস্তুতি সুবিধার জন্য ইন্দো-প্যাসিফিক অর্থনৈতিক কাঠামো।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত