বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

‘অবহেলিত’ জেলার ফুটবল হঠাৎ ‘গুরুত্বপূর্ণ’

আপডেট : ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০১:০০ এএম

কাজী সালাউদ্দিন নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের কমিটির বিরুদ্ধে অন্যতম অভিযোগগুলোর একটি তৃণমূলে নজর না দেওয়া। ২০০৮ সালে প্রথমবারের মতো সভাপতির দায়িত্ব নিয়ে জেলার ফুটবলের দিকে নজর দেননি সালাউদ্দিন। বরং তিনি চেষ্টা করেছেন ঘরোয়া ফুটবলকে নিয়মিত করতে। দ্বিতীয় মেয়াদে এসে বিচ্ছিন্ন কিছু পদক্ষেপ নিয়েও জেলার ফুটবলকে চাঙ্গা করতে পারেননি। বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হবে আগামী বছর এপ্রিলে। এর আগে যেন বোধোদয় ঘটল বাফুফে কর্তাদের। এখন তারা চাইছেন জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ের ফুটবলকে চাঙ্গা করতে। এজন্য সরকারের সহায়তা পেতে উদ্যোগও নিতে যাচ্ছেন। গতকাল জরুরি সভা করে কিছু প্রস্তাবনাও চূড়ান্ত করেছে বাফুফে। যা নিয়ে আগামীকাল যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেলের সঙ্গে দেখা করতে যাবেন বাফুফে কর্তারা। সঙ্গে থাকবেন সব জেলা ও বিভাগীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতিরা।

গতকালের সভা শেষে বাফুফে সহসভাপতি কাজী নাবিল আহমেদ জানান, ‘আগামী পরশু (মঙ্গলবার) ডিএফএ’র সভাপতিদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তাদের নিয়ে আমরা জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের নতুন প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে যাব। তার কাছে ফুটবল উন্নয়নে কিছু প্রস্তাবনা উপস্থাপন করব আমরা।’

কী কী প্রস্তাবনা চূড়ান্ত হয়েছে তা এখনই বলতে চাচ্ছে না বাফুফে। কাজী নাবিল আরও বলেন, ‘আজ সভায় আমরা বেশ কিছু প্রস্তাবনা নিয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিয়েছি যা মন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা শেষে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হবে।’ নাবিল মনে করেন, নতুন প্রতিমন্ত্রী ফুটবলের সমস্যার দিকগুলো বিবেচনা করে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেবেন, ‘দেশে নতুন সরকার গঠিত হয়েছে। ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী হিসেবে যিনি এসেছেন তিনি খেলাধুলারই মানুষ। আশা করছি প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে আমাদের কাজগুলো সামনে আরও এগিয়ে যাবে।’

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত