শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

১৬০ অনুপ্রবেশকারীকে শিগগির মিয়ানমারে ফেরত

আপডেট : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৩:১৩ এএম

মিয়ানমার থেকে বান্দরবান সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশের ভেতরে ঢুকে পড়া ১৬০ বৌদ্ধ নাগরিককে কয়েকদিনের মধ্যে ফেরত পাঠানো হতে পারে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মো. দাউদুল ইসলাম। তিনি দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘এসব লোক যাতে বাংলাদেশের ভেতরে কোথাও আসতে না পারে, সে জন্য তাদেরকে সার্বক্ষণিক নজরদারিতে রাখা হয়েছে। তাদেরকে হয়তো কয়েকদিনের মধ্যে পুশব্যাক করা হবে। আমরা ওপর মহলের নির্দেশের অপেক্ষায় আছি।’
মিয়ানমারের এই নাগরিকরা বান্দরবানের রুমা উপজেলার চাইংক্ষ্যংপাড়ার পার্শ্ববর্তী সীমান্তে শূন্যরেখা বরাবর খোলা জায়গায় অবস্থান করছে বলে জানিয়েছেন বিজিবির বান্দরবান সেক্টরের কমান্ডার কর্নেল জহিরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ‘সর্বাত্মকভাবে সীমান্ত সিল করা হয়েছে। তারা যাতে বাংলাদেশের ভেতরে ঢুকতে না পারে সেজন্য সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় রয়েছে বিজিবি। তবে পালিয়ে আসা লোকজনের কেউ কেউ খাদ্য, ওষুধসহ জীবনরক্ষাকারী সামগ্রীর জন্য চাইংক্ষ্যংপাড়াবাসীর কাছে সাহায্য চাইতে এলে মানবিক কারণে তাদের দু-একজনকে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে। প্রয়োজনীয় সামগ্রী নিয়ে তারা আবার চলে যাচ্ছে।’

স্থানীয় বাসিন্দা অংহ্লা মারমা জানান, পাড়ার পাশেই খোলা জায়গায় প্লাস্টিক ও বাঁশের ছাউনিতে মিয়ানমারের নাগরিকরা অস্থায়ী আবাস গেড়েছে। পাড়াবাসীর কেউ কেউ তাদেরকে খাদ্যসামগ্রী দিয়ে সহায়তা করছে। তবে পাড়ার লোকজনের আর্থিক অবস্থা তেমন ভালো না হওয়ায় লোকসংখ্যা অনুযায়ী যথেষ্ট খাবার-দাবার তাদেরকে দেওয়া যাচ্ছে না।

তিনি দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘একজনের খাবার তারা চার-পাঁচজন মিলে ভাগ করে খাচ্ছে। বৃহস্পতিবার সকালে এক রাখাইন নারীর সন্তানের জন্ম হয়েছে। আরো দুজন গর্ভবতী নারী আছেন। দু-একদিনের মধ্যে তাদেরও সন্তান প্রসব হতে পারে।’

স্থানীয় রেমাক্রী প্রাংসা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জিরা বম বলেন, মিয়ানমারের নাগরিকরা জীবন ঝুঁকিতে রয়েছে বলে মনে করে। পরিস্থিতি শান্ত হলে নিজেরাই ফিরে যাবে বলে জানিয়েছে তারা। তবে দুদিনের পাহাড়ি হাঁটাপথে তীব্র শীত ও খাদ্যসংকটের আশঙ্কায় তারা ফেরার কথা ভাবতে পারছে না।
গত রবিবার থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত সময়ে রাখাইনের চিন রাজ্য দিয়ে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করা এসব রোহিঙ্গারা বলছে, মুসলিম সশস্ত্র সংগঠন আরাকান আর্মির সঙ্গে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সংঘর্ষের মধ্যে প্রাণভয়ে তারা পালিয়ে এসেছে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত