রোববার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

দোলেশ্বরকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন শেখ জামাল

আপডেট : ০৪ মার্চ ২০১৯, ০৯:৫২ পিএম

ইমতিয়াজ হোসেনের ফিফটির সঙ্গে নুরুল হাসান সোহান ও তানবীর হায়দারের ত্রিশোর্ধ্ব রানে ভর করে চ্যালেঞ্জিং পুঁজি গড়েছিল শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। এরপর বোলাররা দুর্দান্ত পারফর্ম করলেন। শহিদুল ইসলাম নিলেন ৪ উইকেট। তাতে প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাবকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো আয়োজিত প্রিমিয়ার টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতে নিল শেখ জামাল।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে সোমবার আসরের ফাইনালে ২৪ রানে জয় পেয়েছে শেখ জামাল। টস জিতে আগে ব্যাট করে ৭ উইকেটে ১৫৭ রান করেছিল দলটি। জবাবে ৮ উইকেটে ১৩৩ রানে থেমেছে দোলেশ্বরের ইনিংস।

ফ্লাড লাইটের আলোয় অনুষ্ঠিত ম্যাচে টস জিতে আগে ব্যাটিং বেছে নিয়েছিল শেখ জামাল। দুই ওপেনার ইমতিয়াজ হোসেন ও ফারদিন হাসান শুরুটা দারুণ করেন। এই দুজনের জুটি থেকে আসে ৬২ রান। ফারদিন ২০ বলে ১৮ কর ফিরলে এই জুটির পতন হয়। ফারদিনকে ফেরান মানিক খান।

এরপর দ্রুত আরো তিন উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে শেখ জামাল। হাসানুজ্জামান ( ৪) ও নাসির হোসেনের (৫) সঙ্গে ফিরে যান ইমতিয়াজও। আরাফাত সানির বলে বোল্ট হওয়ার আগে ৪৪ বলে ২ ছক্কা ও ৪ চারে ৫৬ রান করেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান ইমতিয়াজ।

আগের ম্যাচে ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে দলকে ফাইনালে নিয়ে যাওয়া জিয়াউর রহমান এদিন করলেন মাত্র ২ রান। ১০৪ রানে পঞ্চম উইকেট হারানো শেখ জামাল এরপর সোহান ও তানবীরের ব্যাটে এগিয়েছে। ফরহাদ রেজার শিকার হওয়ার আগে সোহান ২৭ বলে ৩৩ রান করেন ৩ চারে। ঝড় তুলে তানবীর ১৫ বলে ৩১ রান করেন ৪ চার ও ১ ছক্কায়।

দোলেশ্বরের পক্ষে ফরহাদ রেজা সর্বাধিক ৩ উইকেট নিয়েছেন। ১টি করে উইকেট নিয়েছেন আরাফাত সানি, এনামুল হক জুনিয়র, মানিক খান ও সৈকত আলি।

জবাব দিতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতেই ৫৫ রান যোগ করেন দুই ওপেনার সাইফ হাসান ও মোহাম্মদ আরাফাত। অষ্টম ওভারে রিটায়ার্ড হার্ড হয়ে মাঠ ছাড়েন আরাফাত। ২২ বলে ৩৩ রান করেন তিনি। এরপর দলীয় ৬২ রানে ২৬ রান করা সাইফকে ফিরিয়ে দেন সালাউদ্দিন শাকিল।

তখন থেকেই দোলেশ্বরের ব্যাটসম্যানদের আসা যাওয়ার মিছিল শুরু। অধিনায়ক ফরহাদ রেজা ব্যক্তিক্রম ছিলেন। ঝড় তুলেছিলেন এই অলরাউন্ডার। কিন্তু সেই ঝড় থামিয়েছেন শহিদুল। নিয়েছেন সব মিলে মোট ৪ উইকেট।

ফরহাদ রেজা ২০ বলে ৪৫ রান করেছেন ২ চার ও ৫ ছক্কায়। দোলেশ্বরের বাকি ব্যাটসম্যানদের কেউই দুই অঙ্ক স্পর্শ করতে পারেনি। শেখ জামালের পক্ষে শহিদুলের ৪ উইকেট ছাড়াও ২ উইকেট নিয়েছেন সালাউদ্দিন শাকিল। ১টি করে উইকেট নিয়েছেন ইলিয়াস সানি ও মিনহাজুল আবেদীন আফ্রিদি।

ম্যাচ সেরা হয়েছেন শেখ জামালের ইমতিয়াজ হোসেন।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত