মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

অভ্যন্তরীণ রক্তক্ষরণে শঙ্কা, আবার হতে পারে সৌমিত্রর ডায়ালাইসিস

আপডেট : ০১ নভেম্বর ২০২০, ১০:১১ পিএম

দীর্ঘদিন ধরে জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে অবস্থান করছেন কিংবদন্তি ভারতীয় অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। দক্ষিণ কলকাতার বেলভিউ নার্সিংহোমে ভর্তি হওয়ার পর কেটে গিয়েছে ২৫ দিন। আর প্রতি মুহূর্তে প্রিয় নায়কের আরোগ্য কামনা করে প্রার্থনা করেছেন শুভাকাঙ্ক্ষীরা। রবিবার আবার হাসপাতালের পক্ষ থেকে জানানো হল, ইন্টারনাল ব্লিডিং বা অভ্যন্তরীণ রক্তক্ষরণ হয়েছে তার। যার জন্য চিন্তিত ডাক্তাররাও।

এদিন বিকেল পাঁচটার মেডিকেল বুলেটিনে বেলভিউর পক্ষ থেকে ডা. অরিন্দম কর জানান, বর্ষীয়ান অভিনেতার হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বেশ খানিকটা কমে যায়। পাশাপাশি শরীরের ভেতর রক্তক্ষরণও হয়েছে নতুন করে। সকাল থেকে অবস্থার উন্নতি ঘটানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। আপাতত রক্তক্ষরণের সমস্যা খানিকটা মিটেছে। রক্তে প্লেটলেট বেড়েছে। হিমোগ্লোবিনের মাত্রাও ধীরে ধীরে স্থিতিশীল হচ্ছে। তবে রক্তক্ষরণের জন্য শরীরে বেশ কিছু সমস্যা দেখা দেয়। তাই এদিনই ফের ডায়ালাইসিস হতে পারে তার। এ ছাড়া আগের মতোই ভেন্টিলেশন সাপোর্টে রয়েছেন। সেইভাবেই কাজ করছে ফুসফুস। কোনো উন্নতি বা অবনতি হয়নি। শরীরে অন্যান্য সংক্রমণও মোটামুটি নিয়ন্ত্রণে।

এদিকে শরীরে প্লেটলেটের ঘাটতির খবর প্রকাশ্যে আসতেই সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের অবস্থাকে সামনে রেখে রক্তদানের আহ্বান জানিয়েছে রাজ্যের মোশন পিকচার্স আর্টিস্ট ফোরাম। ফোরামের পক্ষ থেকে সদস্যদের বলা হয়েছে, ‘আপনারা জানেন, আমাদের সভাপতি তথা কিংবদন্তি অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের চিকিত্‍‌সা চলছে। তার কিছু সময় অন্তরই ব্লাড ট্রান্সফিউশন করতে হচ্ছে। আপনি যদি শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ থাকেন ও রক্তদানে ইচ্ছুক হন (শুধুমাত্র A+ রক্তদাতা), তাহলে অনুগ্রহ করে অবিলম্বে ফোরামের অফিসে 7044061901/7044064901 এই নম্বরে যোগাযোগ করুন।’

উল্লেখ্য ৬ অক্টোবর থেকে বেলভিউ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অভিনেতা। করোনা আক্রান্ত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। প্লাজমা থেরাপির পর তার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। সেই সঙ্গে চিকিৎসাতেও সাড়া দিতে থাকেন তিনি। কিন্তু আচমকাই তার শারীরিক অবস্থা সংকটজনক হয়ে পড়ে। তবে এই বয়সেও কো-মর্বিডিটি থাকা সত্ত্বেও জোর লড়াই করে চলেছেন ‘ফেলুদা’।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত