শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

সংসদ নির্বাচনে আ. লীগের ব্যয় পৌনে তিন কোটি টাকা

আপডেট : ০২ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:০২ এএম

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সাড়ে চার কোটি টাকা ব্যয়ের সুযোগ থাকলেও দলটির ব্যয় হয়েছে পৌনে তিন কোটি। এসব টাকা ব্যয় হয়েছে পোস্টার, জনসভা ও প্রচারে। গতকাল সোমবার আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধিদল নির্বাচন কমিশনে নির্বাচনী ব্যয় বিবরণী জমা দিতে এসে এ তথ্য জানায়।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্লাহর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল ইসি সচিব মো. জাহাংগীর আলমের কাছে ব্যয় বিবরণী জমা দেয়।

আইন অনুযায়ী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সম্পন্ন হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে জাতীয় সংসদে নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী প্রতিটি রাজনৈতিক দলকে নির্বাচনী ব্যয় বিবরণী দাখিলের বিধান রয়েছে।

নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর থেকে ভোট শেষ হওয়া পর্যন্ত রাজনৈতিক দলগুলো প্রার্থীদের জন্য কত ব্যয় করতে পারবে, তা আইনে নির্ধারণ করে দেওয়া আছে। ২০০ জনের অধিক প্রার্থী হলে সর্বোচ্চ ব্যয় করতে পারবে ৪ কোটি ৫০ লাখ টাকা। প্রার্থীর সংখ্যা ১০০ জনের বেশি, তবে ২০০ জনের কম হলে ব্যয় করতে পারবে ৩ কোটি টাকা। কোনো দলের প্রার্থীর সংখ্যা ৫০ থেকে ১০০ হলে সেই দল দেড় কোটি টাকা এবং প্রার্থীর সংখ্যা ৫০ জনের কম হলে সর্বোচ্চ ৭৫ লাখ টাকা ব্যয় করতে পারবে।

আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ এইচ এন আশিকুর রহমান জানান, দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ব্যয় হয়েছে ২ কোটি ৭৬ লাখ ৭৮ হাজার ১২০ টাকা। প্রার্থীরা নিজ থেকে ব্যয় করেন, তাই আমাদের ব্যয় কম হয়। পুরো ব্যয়টা দলীয় হয় না। অন্য দলের যেখানে ১০ টাকা লাগে, সেখানে আমাদের ২ টাকা লাগে। পোস্টার, জনসভা, প্রচার ইত্যাদি খাতে ব্যয় হয়েছে বলে জানান তিনি।

দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, নিবন্ধিত দল হিসেবে আমরা প্রতিবছর আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দেব। গতকাল নির্বাচনী ব্যয়ের বিবরণী জমা দেওয়া হয়েছে। আয়ের বিবরণী বার্ষিক অডিট রিপোর্টে দেওয়া হয়ে থাকে। ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বরের একাদশ সংসদ নির্বাচনে ১ কোটি ৫ লাখ ব্যয় হয়েছিল বলে জানান তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান, অর্থ পরিকল্পনা উপ-কমিটির সদস্য জাফরুল শাহরিয়ার জুয়েল, সংস্কৃতি উপকমিটির সদস্য নুরুল আলম পাঠান প্রমুখ।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত