শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

বর্তমান ইসি রাজদরবারের গোপাল ভাঁড়: সালাম

আপডেট : ২১ মে ২০২৪, ০৭:৩৫ পিএম

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের আহ্বায়ক আবদুস সালাম বলেছেন, বাংলাদেশে নির্বাচন ব্যবস্থা আর অবশিষ্ট নেই। এই নির্বাচন কমিশন রাজদরবারের গোপাল ভাঁড়ে পরিণত হয়েছে। মানুষ সরকারকে প্রত্যাখ্যান করে ভোট দিতে যায়নি, অথচ তারা বলছে ধানকাটার কারণে মানুষ ভোট দিতে যায়নি।

তিনি বলেন, বিভিন্ন বিদ্যুৎ কোম্পানির সঙ্গে সরকার চুক্তি করেছে যাদের কাছ থেকে কোনো বিদ্যুৎ কেনা হচ্ছে না। কেবল লুটপাট করতেই কুইকরেন্টালের ভাড়া টাকার পরিবর্তে ডলারে দেওয়া হচ্ছে। এই লুটপাট বন্ধে সরকারের বিরুদ্ধে গণআন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনের ভাসানী মিলনায়তনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির ২ নম্বর জোনের সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সালাম বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের জনপ্রিয়তা ও লজ্জা দিনে দিনে সমানহারে কমছে। একটি দল নিজের কর্মদোষে ধ্বংস ও নিশ্চিহ্ন হওয়ার এটা বড় লক্ষণ। মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত প্রত্যাখ্যানে এবারের প্রহসনমূলক উপজেলা নির্বাচন অতীতের সকল ইতিহাসকে ম্লান করে ফেলেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, মানুষের এই মৌন অনাস্থা একসময় বিক্ষোভের অগ্নিস্ফুলিংগে পরিণত হবে।

তিনি বলেন, সরকার সারাক্ষণ অস্থিরতায় থাকে। এই বুঝি তাদের পতনের হুইসেল বেজে উঠল। এই ভয় থেকেই সরকার বিএনপির একের পর এক নেতাকে কারাগারে নিচ্ছে। কিন্তু এসব গ্রেপ্তার করে পতন ঠেকানো যাবে না। এখনও সময় আছে, দেয়াল লিখন পড়ুন। মানুষের দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। তাই মানুষ ঘুরে দাঁড়ানোর আগেই মানে মানে কেটে পড়ুন।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু তার বক্তব্যে বলেন, দেশের নাগরিক বিভিন্নভাবে সরকারকে বার বার প্রত্যাখ্যানের সংকেত দিচ্ছে। সরকার তলে তলে এই অনাস্থা ও প্রত্যাখ্যানে দিশেহারা হয়ে এখন আবোল-তাবোল বক্তব্য দিচ্ছে। তিনি সরকারকে তালবাহানা বাদ দিয়ে অবৈধভাবে আঁকড়ে থাকা ক্ষমতার চেয়ার ছেড়ে দিয়ে সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তরের আহ্বান জানান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক নবী উল্লাহ নবী, যুগ্ম আহ্বায়ক ইউনুস মৃধা, মোহাম্মদ মোহন, আব্দুস সাত্তার, হারুন-অর-রশিদ, লিটন মাহমুদ, কে সিকান্দার কাদির, হাজী কাজী মনির হোসেন, সদস্য ও দপ্তরের দায়িত্বে সাইদুর রহমান মিন্টুসহ মতিঝিল, শাহাজাহানপুর ও পল্টন থানা বিএনপির নেতৃবৃন্দ।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত