শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

মালয়েশিয়া পালানোর সময় ৯৩ রোহিঙ্গা আটক

আপডেট : ২৭ নভেম্বর ২০১৮, ০৭:২৩ পিএম

পালিয়ে মালয়েশিয়া যাওয়ার পথে ৯৩ জন রোহিঙ্গাবাহী একটি ইঞ্জিনচালিত নৌকা আটক করেছে মিয়ানমার নৌবাহিনী। বাস্তুচ্যুত এসব রোহিঙ্গা রাখাইনের আশ্রয়কেন্দ্র থেকে পালানোর চেষ্টা করেছিলেন বলে মঙ্গলবার দেশটির এক কর্মকর্তা জানান।

গতমাসে বর্ষা কমে আসার পর এনিয়ে তৃতীয়বারের মতো মিয়ানমারের জলসীমায় মালয়েশিয়াগামী রোহিঙ্গাবাহী নৌকা আটক হলো।

আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, আবহাওয়া শান্ত হয়ে আসায় ঝুঁকিপূর্ণ এই নৌযাত্রার সংখ্যা সামনের দিনগুলোতে বাড়তে থাকবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ ধরনের মানবপাচার বন্ধে ২০১৫ সালে পাচারকারীদের ওপর ব্যাপক ধরপাকড় চালানো হয়েছিল।

মিয়ানমারের দক্ষিণাঞ্চলীয় উপকূলীয় শহর দভেই’র ডিরেক্টর মোয়ে জ লাত বলেন, জেলেরা সন্দেহজনক নৌকা দেখতে পেয়ে সংশ্লিষ্টদের খবর দেয়। নৌবাহিনী রোববার নৌকাটি জব্দ করে এবং ৯৩ জন রোহিঙ্গাকে আটক করে।

এসব রোহিঙ্গা রাখাইন রাজ্যের রাজধানী সিতভি’র থায়ে চাউং আশ্রয়কেন্দ্র থেকে পালিয়ে আসে বলেও জানান ওই কর্মকর্তা।

মঙ্গলবার মো জ বলেন, “তারা ক্যাম্প থেকে (রোহিঙ্গা) পালিয়ে আসার কথা বলেছে। মালয়েশিয়া যাওয়ার চেষ্টা করছিল বলে তারা জানায়। কর্তৃপক্ষ তাদেরকে সিতভিতে ফেরত পাঠানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে।”

সংবাদমাধ্যমে প্রচার হওয়া একটি ছবিতে দেখা যায়, আটক লোকজনের পাশে পুলিশ সদস্যরা দাঁড়িয়ে আছেন, আর নৌকায় গাদাগাদি করে অনেক লোকজন বসা যাদের অধিকাংশই শিশু এবং হিজাব পরিহিত নারী।

সাধারণত রাখাইনের জাতি-বিদ্বেষ পরিস্থিতি থেকে পালিয়ে বাঁচতে রোহিঙ্গারা এ ধরনের নৌকা ব্যবহার করে আশপাশের দেশে আশ্রয় নিয়ে থাকেন। রাখাইনে রোহিঙ্গাদের চলাফেরা এবং সরকারি সেবাপ্রাপ্তিতে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

গত বছরের আগস্টে সেনা ও পুলিশ চেকপোস্টে ‘জঙ্গি হামলার’ অভিযোগে রাখাইনে অভিযান শুরু করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। এতে কয়েক হাজার রোহিঙ্গা নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে মানবাধিকার সংগঠনগুলো। পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে সাড়ে ৭ লাখ রোহিঙ্গা। এটাকে ‘পাঠ্যপুস্তকে উদাহরণ দেয়ার মতো জাতিগত নিধন’ বলে আখ্যায়িত করেছে জাতিসংঘ।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত