রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

আজারবাইজান সীমান্তে ইরানের বিশাল মহড়া

আপডেট : ০২ অক্টোবর ২০২১, ০১:০৪ এএম

ইরানের সামরিক বাহিনী দেশটির আজারবাইজান সীমান্তের কাছাকাছি ব্যাপক সামরিক মহড়া শুরু করেছে। সম্প্রতি দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনার মধ্যেই সামরিক শক্তি প্রদর্শনের জন্য এ মহড়া শুরু করে ইরান। অন্যদিকে আজারবাইজানের সঙ্গে ইসরায়েলের রয়েছে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক। গতকাল শুক্রবার ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের এক ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, দেশটির উত্তর-পশ্চিমের একটি অনির্দিষ্ট এলাকায় ট্যাঙ্ক, হেলিকপ্টার, কামান ও ব্যাপক সৈন্য মোতায়েন করেছে ইরান।

সেনাবাহিনী জানিয়েছে, এতে প্রথমবারের মতো স্থানীয়ভাবে তৈরি কিছু দূরপাল্লার ড্রোন ও অন্যান্য অস্ত্রের পরীক্ষা চালানো হচ্ছে। ইরান জানিয়েছে, তাদের চিরশত্রু ইসরায়েলের সঙ্গে আজারবাইজানের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক নিয়ে তারা উদ্বিগ্ন। কারণ, ইসরায়েল প্রতিনিয়ত আজারবাইজানের সেনাবাহিনীকে হামলা করতে সক্ষম এমন উচ্চ প্রযুক্তির ড্রোন এবং অন্যান্য সরঞ্জাম সরবরাহ করছে।

গত বৃহস্পতিবার তেহরানে আজারবাইজানের নতুন দূতকে স্বাগত জানিয়ে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমিরাবদুল্লাহিয়ান হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, ইরান তার জাতীয় নিরাপত্তার বিরুদ্ধে জায়নবাদী শাসনের উপস্থিতি ও কর্মকাণ্ড সহ্য করবে না। এ ব্যাপারে যা যা প্রয়োজন তা করা হবে। সামরিক মহড়ার সময় ইরানি সেনাবাহিনীর কমান্ডার কিউমারস হায়দারি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে বলেন, বিতর্কিত নাগারনো-কারাবাখ অঞ্চলে আইএসআইএস যোদ্ধাদের উপস্থিতি নিয়ে ইরান উদ্বিগ্ন।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত