সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

‘ওপেনহাইমার’কেও ছাড়িয়ে গেল ‘টুয়েলভথ ফেল’

আপডেট : ১১ জানুয়ারি ২০২৪, ০৫:৩৮ পিএম

সাফল্যের একের পর এক মাইলফলক জুটছে ‘টুয়েলভথ ফেল’র। ডিজনি হটস্টারে কিছুদিন আগে ‘মোস্ট ওয়াচড’ সিনেমার তকমা পেয়েছিল বিধু বিনোদ চোপড়ার এই সিনেমা। এবার আইএমডিবিতেও সেরার শিরোপা পেল টুয়েলভথ ফেল। পেল ৯.২ রেটিং, যা কি না ক্রিস্টোফার নোলানের ‘ওপেনহাইমার’ সিনেমার রেটিংকেও ছাড়িয়ে গেছে।

এমনকি আইএমডিবির তালিকায় সেরা ২৫০টি ভারতীয় সিনেমার মধ্যেও শীর্ষস্থানে রয়েছে টুয়েলভথ ফেল। আইএমডিবিতে প্রায় ২০ হাজারেরও বেশি ভোট পড়েছে এই সিনেমার জন্য। আইএমডিবিতে ‘ওপেনহাইমার’ ছাড়াও ‘স্পাইডার-ভার্স’ রেটিং পেয়েছে ৮.৬, ‘গডজিলা মাইনাস ওয়ান’ পেয়েছে ৮.৪।   

টুয়েলভথ ফেল সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাওয়ার সময় থেকেই সর্বমহলে চর্চা শুরু হয়। যেহেতু খুবই সীমিত সংখ্যক প্রেক্ষাগৃহে এই সিনেমা দেখা যাচ্ছিল, ফলে বিশাল অঙ্কের মানুষ তা দেখতে পাননি। আর তাই ওটিটিতে আসার পরেই যেন এর জনপ্রিয়তা একবারে কয়েক ধাপ বেড়ে গেছে। বক্স অফিসে ৫২ দিনে সারা বিশ্বজুড়ে ৬৭ কোটি টাকার ব্যবসা করার পর ওটিটির দুনিয়াতেও এই সিনেমা সেরার শিরোপায় ভূষিত।

ডিজনি হটস্টারের কনটেন্ট হেড গৌরব বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ওটিটিতে মুক্তি পাওয়ার মাত্র তিনদিনের মাথায়, ২০২৩ সালের মোস্ট ওয়াচড সিনেমার তালিকায় একেবারে শীর্ষে উঠে এসেছে টুয়েলভথ ফেল। 

‘টুয়েলভথ ফেল’ সিনেমার নেপথ্যে যে সত্যি গল্প ভারতের আইপিএস কর্মকর্তা মনোজ শর্মা ও আইআরএস কর্মকর্তা শ্রদ্ধা জোশি দম্পতির জীবনের গল্প নিয়ে ২০১৯ সালে ‘টুয়েলভথ ফেল’ নামে একটি উপন্যাস লেখেন দেশটির ঔপন্যাসিক অনুরাগ পাঠক। সেই উপন্যাস অবলম্বনে ‘টুয়েলভথ ফেল’ সিনেমা নির্মাণ করেন বিধু বিনোদ চোপড়া। 

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত