বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

যানবাহন থামিয়ে চাঁদা, গ্রেপ্তার ১৮

আপডেট : ১৯ মে ২০২৪, ০৫:২৮ পিএম

উত্তরাঞ্চলে নীলফামারীসহ আট জেলার সড়ক-মহাসড়কে নির্বিঘ্নে চলছে পণ্যবাহী ট্রাকসহ বিভিন্ন যানবাহন। দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন পণ্যবাহী ট্রাক, মিনিট্রাক, কাভার্ড ভ্যান, বাস, মিনিবাস, মাইক্রো, অটো, সিএনজি হতে জোরপূর্বক চাঁদা আদায় করে আসছে একটি চক্র। চাঁদা না দিলে বিভিন্ন প্রকার হুমকি প্রদান করে।

চাঁদাবাজির অভিযোগে গত দুদিনে বিভিন্ন সড়কে অভিযান চালিয়ে ১৮ জনকে আটক করেছে র‌্যাব—১৩ রংপুর ও সিপিসি ক্যাম্প। র‌্যাবের পক্ষে চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আজ রবিবার দুপুরে এক বিজ্ঞপ্তিতে সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব—১৩ এর উপ পরিচালক মিডিয়া স্কোয়াড্রন লীডার মাহমুদ বশির আহমদ।

গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় নীলফামারীর জলঢাকা নীলফামারী মহাসড়ক থেকে দুইজন চাঁদাবাজ জলঢাকা এলাকার মোঃ শাহআলম (৪৩), গোলাম মোস্তফা (৪২), রংপুর জেলার হারাগাছ এলাকা থেকে পাঁচজন চাঁদাবাজ মাসুদ আহমেদ (৪৫), দিপক সরকার (৪০),জালাল মিয়া (৩২), পলাশ চন্দ্র রায় (৩২),  মিলন মিয়া (৩২), রংপুরের গঙ্গাচড়া থানাধীন রংপুর—নীলফামারী মহাসড়ক এলাকা, দক্ষিণ খলেয়া গঞ্জিপুর বাজার সংলগ্ন ভিন্নজগতের মোড়, পাগলাপীর বাজার এলাকার থেকে ৭ জন চাঁদাবাজ চক্রের মূল হোতা  চাঁন মিয়া (৫৬), অমল চন্দ্র রায় (৪০),আলাউদ্দিন (১৮),ফারুক মিয়া (১৯), জাহাঙ্গীর আলম (৫৬), মহসিন আলী (৪০), মজিদুল ইসলাম (৪২),কুড়িগ্রাম জেলার রংপুর কুড়িগ্রাম মহাসড়কে অভিযান চালিয়ে চারজন  জাবেদ (৩৪), শাহাবুল ইসলাম (২৯), বেলাল হোসেন (২৭),ইব্রাহিম আলী(২৮) সহ ১৮ জনকে গ্রেপ্তার  করা হয়।

মাহমুদ বশির আহমেদ আরও জানান, এই অভিযান অব্যাহত রাখা হয়েছে। আর যাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় পেনাল কোড ১৮৬০ এর ৩৮৫/৩৮৬/১১৪/৩৪ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। রবিবার বিকালে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত