মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

নির্বাচনী বিরোধে যশোরে যুবককে গুলি করে হত্যা

আপডেট : ০৮ জুন ২০২৪, ০২:৩৩ এএম

যশোরে ‘নির্বাচনী বিরোধের’ জের ধরে এক যুবককে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। তার নাম আলী হোসেন (৩৫)।

গত বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে যশোরের নওয়াপাড়া ইউনিয়নের বাহাদুরপুর তেঁতুলতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরিবারের দাবি, উপজেলা পরিষদ নির্বাচন নিয়ে উত্তেজনার জের ধরে আলী হোসেনকে হত্যা করা হয়েছে। তবে পুলিশ বলছে, জমিজমা-সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এ হত্যাকান্ড হতে পারে।

আলী হোসেনের বাবা রহমত আলী বলেন, আলী হোসেন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মোটরসাইকেল প্রতীকের কর্মী ছিল। একই এলাকার ঘোড়া প্রতীকের কর্মী নবাব মেম্বার গ্রুপের সঙ্গে তার বিরোধ চলে আসছিল। সে কারণেই তাকে হত্যা করা হয়েছে।

সোহান নামে এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে নিহত আলী হোসেন ও নয়ন নামে আরও একজনসহ আমরা একটি মোটরসাইকেলে বাড়ি ফিরছিলাম। মোটরসাইকেলের চালক ছিলেন আলী হোসেন। বাহাদুরপুরের তেঁতুলতলার কাছাকাছি পৌঁছালে আমরা দেখতে পাই পেছনে থেকে একটি মোটরসাইকেল আসছে। সেখানে দুজন ছিলেন। ওই মোটরসাইকেল আমাদের কাছাকাছি এসে গুলি ছোড়ে। আমরা চলন্ত মোটরসাইকেল থেকে লাফ দিই। এরপর আমি একটি ট্রাকের পেছনে গিয়ে লুকাই। এ সময় বেশ কয়েকটি গুলির শব্দ শুনতে পাই। হামলাকারীরা চলে গেলে বেরিয়ে দেখি একটি মেহগনি বাগানে আলী হোসেন রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছেন। তাকে একটি রিকশায় তুলে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে এলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক সুজায়েত হোসেন জানান, ঘটনাস্থলেই আলীর মৃত্যু হয়েছে। তার মাথায় দুটি ও পায়ে একটি গুলির চিহ্ন পাওয়া গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সোহান আরও জানান, তারা গত ৫ জুন অনুষ্ঠিত যশোর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থী তৌহিদ চাকলাদার ফন্টুর কর্মী ছিলেন। তাদের প্রার্থী জয়ী হওয়ায় তারা উপশহর ই-ব্লকে ওইদিন রাতে বনভোজন করেন। সেখান থেকে ফেরার পথে এ ঘটনা ঘটে।

যশোর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জুয়েল ইমরান বলেন, স্থানীয়দের সঙ্গে জমিজমা-সংক্রান্ত বিরোধে এ হত্যাকা-টি ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। নির্বাচনী কোনো বিষয় আছে কি না, সে বিষয়ে তদন্ত চলছে। জড়িতদের আটকে পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে।

কোতোয়ালি থানার ওসি আবদুর রাজ্জাক জানান, শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ করা হয়নি।

   
সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত