বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

৩৭ বছরের মেসির ৩৭ রেকর্ড

আপডেট : ২৪ জুন ২০২৪, ০৯:৩৪ পিএম

লিওনেল মেসির আজ ৩৭তম জন্মদিন। আর্জেন্টিনার হয়ে কোপা আমেরিকা ও বিশ্বকাপ দুটোই জিতেছেন মেসি। এবার জন্মদিনের সময়টাতে তিনি আছেন আরেকটি কোপা আমেরিকা জয়ের মিশনে।

মেসির নামে আছে ফুটবলের বহু রেকর্ড। আজ যেহেতু তার ৩৭তম জন্মদিন, দিনটি উপলক্ষ্যে এক নজরে দেখে নেওয়া যাক মেসির ৩৭টি রেকর্ড -

১. ফুটবলার হিসাবে সবচেয়ে বেশি শিরোপা জয় করেছেন মেসি (৪৪ ট্রফি)।

২. সবচেয়ে বেশি ব্যালন ডি'অর মেসির (৮টি)।

৩. সবচেয়ে বেশি গোল্ডেন বুট জয়ী খেলোয়াড়ও মেসি (৬টি)।

৪. এক ক্যালেন্ডার ইয়ারে সবচেয়ে বেশি গোলের রেকর্ড মেসির (৯১ গোল ২০১২ সালে)।

৫. আর্জেন্টিনার এবং দক্ষিণ আমেরিকান কোন দলের হয়েও সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ডটা মেসির দখলে। মেসি এখন পর্যন্ত আর্জেন্টিনার হয়ে খেলেছেন ১৮৩ ম্যাচ। ২০২১ এ বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ব্রাজিলের সঙ্গে বাতিল ম্যাচটি ধরা হয়নি।

৬. আর্জেন্টিনা এবং দক্ষিণ আমেরিকার কোন দলের হয়েও সর্বোচ্চ গোলদাতা মেসি (১০৮টি)।

৭. বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার হয়ে সর্বোচ্চ গোল (১৩টি) মেসির।

৮. প্রথম আর্জেন্টাইন হিসাবে চারটি বিশ্বকাপ আসরে গোল করেছেন মেসি (২০০৬, ২০১৪, ২০১৮ ও ২০২২)।

৯. বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার তরুণ খেলোয়াড় হিসাবে গোলের রেকর্ড এখনও মেসির দখলে (২০০৬ সালে, ১৮ বছর ৩৫৭ দিনে)।

১০. বিশ্বকাপ বাছাইয়ে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি গোল মেসির (৩১টি)।

১১. পাঁচটি বিশ্বকাপ খেলা আট জন খেলোয়াড়ের একজন হলেন মেসি।

১২. বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলার রেকর্ডও মেসির দখলে (২৬ ম্যাচ)।

১৩. সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলার ফলে বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি মিনিট মাঠে থাকা খেলোয়াড়ও মেসি (২৩১৪ মিনিট)।

১৪. বিশ্বকাপে অধিনায়ক হিসাবে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলা খেলোয়াড়ও মেসি। অধিনায়ক হিসাবে তিনি বিশ্বকাপে মাঠে নেমেছেন ১৯টি ম্যাচে।

১৫. বিশ্বকাপে গোল ও অ্যাসিস্ট অর্থাৎ গোলে অবদান সবচেয়ে বেশি মেসির। তিনি ১৩ গোলের পাশাপাশি করেছেন ৮ অ্যাসিস্ট।

১৬. একমাত্র খেলোয়াড় হিসাবে মেসি বিশ্বকাপে দুটি গোল্ডেন বল (সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার) পেয়েছেন। মেসি ২০১৪ ও ২০২২ বিশ্বকাপে সেরা খেলোয়াড় হন।

১৭. বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি ম্যাচসেরার পুরস্কারও মেসির দখলে। মোট ১৪বার বিশ্বকাপে ম্যাচসেরা হয়েছেন মেসি।

১৮. বিশ্বকাপের এক আসরে একমাত্র খেলোয়াড় মেসি যিনি গ্রুপ পর্ব, শেষ ষোলো, কোয়ার্টার ফাইনাল, সেমিফাইনাল ও ফাইনালে গোল করেছেন।

১৯. একমাত্র খেলোয়াড় যিনি বিশ্বকাপে ২০ বছর এবং ৩০ বছর বয়সে গোল করেছেন।

২০.বিশ্বকাপে মেসির প্রথম গোলের সঙ্গে সবশেষ গোলে সময়ের পার্থক্য ১৬ বছর, ৬ মাস, ২ দিন। যা সবচেয়ে দীর্ঘ সময়।

২১. সবচেয়ে বেশিবার বিশ্বকাপে ম্যাচের প্রথম গোলটি করেছেন মেসি (৮বার)।

২২. অধিনায়ক হিসাবে বিশ্বকাপে এক ফাইনালে সবচেয়ে বেশি গোল মেসির (২টি)।

২৩. কোপা আমেরিকাতেও সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলা খেলোয়াড় হলেন মেসি (৩৫টি)।

২৪. কোপা আমেরিকা টুর্নামেন্টে সবচেয়ে বেশি অ্যাসিস্ট করা খেলোয়াড় হলেন মেসি (১৭টি)।

২৫. ভিনদেশি হিসাবে সবচেয়ে বেশি স্প্যানিশ লা লিগা জয়ের রেকর্ড মেসির দখলে। বার্সেলোনার হয়ে মেসি জিতেছেন ১০টি লা লিগা।

২৬. বার্সেলোনা ক্লাবের সর্বোচ্চ গোলদাতা মেসি (৬৭২টি)।

২৭. লা লিগাতেও সর্বোচ্চ গোলদাতা মেসি (৪৭৪)।

২৮. স্পেনের এল ক্লাসিকো অর্থাৎ বার্সেলোনা-রিয়াল মাদ্রিদ ম্যাচেও সবচেয়ে বেশি গোল মেসির (২৬টি)।

২৯. লা লিগার এক মৌসুমে সবচেয়ে বেশি গোল করা খেলোয়াড় হলেন মেসি। ২০১১-১২ মৌসুমে করেছিলেন ৫০ গোল।

৩০. লা লিগাতে এক মৌসুমে সবচেয়ে বেশি অ্যাসিস্টের রেকর্ডও মেসির। (২০১৯-২০ মৌসুমে ২১টি অ্যাসিস্ট করেন মেসি)।

৩১. লা লিগার ইতিহাসেও সবচেয়ে বেশি অ্যাসিস্ট মেসির (১৯৩টি)।

৩২. লা লিগায় সবচেয়ে বেশি হ্যাটট্রিকের রেকর্ডও মেসির (৩৬টি)।

৩৩. লা লিগায় ২০১২-১৩ মৌসুমে মেসি টানা ২১ ম্যাচে গোল করেছিলেন মেসি। যা লিগে টানা সবচেয়ে বেশি ম্যাচে গোলের রেকর্ড।

৩৪. লা লিগায় মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার পিপিচি ট্রফিও সবচেয়ে বেশিবার জিতেছেন মেসি (৮ বার)।

৩৫. নির্দিষ্ট একটি ক্লাবের হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে সবচেয়ে বেশি গোল মেসির (বার্সেলোনার হয়ে করেন ১২০ গোল)।

৩৬. চ্যাম্পিয়নস লিগে সবচেয়ে বেশি দলের বিপক্ষে গোল করেছেন মেসি (৪০ দলের বিপক্ষে)।

৩৭. চ্যাম্পিয়নস লিগে সবচেয়ে কম ম্যাচ খেলে ১০০ গোল পূরণের রেকর্ডটা মেসির দখলে। মেসি চ্যাম্পিয়নস লিগে নিজের ১২৩তম ম্যাচ করেন ১০০তম গোল।   

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত