সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

রোহিঙ্গা নিয়ে কথা বলায় প্রধানমন্ত্রীর সতর্কতা

আপডেট : ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০২:৪১ এএম

রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে মন্ত্রিসভার সদস্য ও দলীয় নেতাদের সাবধানে কথা বলার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, ‘রোহিঙ্গা ইস্যুটি আমাদের জন্য সেনসিটিভ। তাই বিষয়টি নিয়ে আমাদের সতর্ক অবস্থানে থাকাই নিরাপদ।’ প্রধানমন্ত্রী গত সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে কথা বলায় সতর্ক থাকার এই নির্দেশ দেন বলে দেশ রূপান্তরকে জানিয়েছেন একজন মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রী। তারা আরও জানান, বিশেষ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমানকে বিষয়টি নিয়ে সতর্কভাবে মন্তব্য করার নির্দেশ দিয়েছেন সরকারপ্রধান। আওয়ামী লীগের সম্পাদকম-লীর দুই সদস্য দেশ রূপান্তরকে বলেন, শুধু মন্ত্রীদের নয়, দলীয় নেতাদেরও রোহিঙ্গা ইস্যুটি নিয়ে যেনতেনভাবে বক্তব্য না দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বারণ রয়েছে। ওই দুই নেতা বলেন, প্রধানমন্ত্রী মনে করেন, রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে আশ্রয় দেওয়া আমাদের জন্য অনেক চ্যালেঞ্জের ছিল। প্রধানমন্ত্রীকে উদ্ধৃত করে তারা বলেন, তারপরও আমরা সাহস দেখিয়ে আশ্রয় দিয়েছি। ফলে আন্তর্জাতিক মহলে ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে বাংলাদেশের। বাংলাদেশের মানুষ যে মানবিকভাবেও উদার সেটি আমরা বিশ্বকে দেখিয়েছি। রোহিঙ্গা ইস্যুতে ব্যাপক বাহবা কুড়িয়েছি আমরা। এই বাহবা আমাদের ধরে রাখতে হবে। যদিও তাদের আশ্রয় দেওয়ায় সমস্যাও হয়েছে। বিদেশিরা রোহিঙ্গাদের ব্যাপারটি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। তাদের যত তাড়াতাড়ি দেশে ফেরত পাঠানো যায় কূটনীতিক সেই চেষ্টা সরকার অব্যাহত রেখেছে। মনে রাখতে হবে, এই সমস্যা কূটনীতিকভাবে মোকাবিলা করে সমাধানে আসতে হবে। আমরা সেই চেষ্টা করে যাচ্ছি। আমি মনে করি, রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তনে আমরা সফল হব।

আওয়ামী লীগের এক শীর্ষ নেতা দেশ রূপান্তরকে বলেন, শুধু রোহিঙ্গা নয়, বিভিন্ন ইস্যুতে দল ও সরকারের দায়িত্বশীলদের কথা বলতে হবে সংযত হয়ে। দায়িত্ব ও কর্তব্য পালনে সবাইকে মনোযোগী হতে হবে। কথা কম বলে কাজে সিরিয়াস হতে হবে। আমাদের মনে রাখতে হবে, দেশের ও জনগণের ভাগ্যের উন্নয়ন। দলের সভাপতিম-লীর এক সদস্য বলেন, কারও কোনো কথায় যাতে কেউ ইস্যু সৃষ্টির সুযোগ না পায় দল ও সরকারের দায়িত্বশীলদের কাছে এই আশাই করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাই বিভিন্ন সময়ে সরকারপ্রধান হিসেবে শেখ হাসিনার সঙ্গে যারাই দেখা করেন সবাইকেই তিনি বলেন, কাজের ব্যাপারে সবাইকে একনিষ্ঠ থাকতে হবে। কথায় না।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত