শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

শারজাহতে বিপাকে চট্টগ্রামের ১৫০ ওমরাহ হজযাত্রী

আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:১৫ এএম

দুই দিনের তীব্র ঝড় ও ভারী বৃষ্টিপাতের কবলে সৃষ্ট আকস্মিক বন্যায় বিপর্যস্ত দুবাই বিমানবন্দর। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত বিমানবন্দরের ১ হাজার ২৪৪টি ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। এ ছাড়া ঘুরিয়ে দেওয়া হয়েছে আরও ৪১টি ফ্লাইট। এতে বিপাকে পড়েছে সারা বিশ্বের যাত্রীরা। বাংলাদেশের চট্টগ্রাম অভিমুখী ১৫০ জন যাত্রী শারজাহ শহরের বিমানবন্দরে আটকা পড়েছেন।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে বলা হয়, টানা বৃষ্টিতে সৃষ্ট বন্যায় বিমানবন্দরের রানওয়ে প্লাবিত হয়ে পরিষেবা ব্যাহত হওয়ার পর গতকাল সকালে দুবাই বিমানবন্দরের টার্মিনাল-১ থেকে আংশিক কার্যক্রম শুরু হয়। বিশ্বের ব্যস্ততম আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরটি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে স্বাভাবিক কার্যক্রমে ফিরতে কঠোর পরিশ্রম করছে।

এর আগে গত মঙ্গলবার যাত্রীদের খুব প্রয়োজন না হলে ‘টার্মিনাল-১’-এ না যাওয়ার আহ্বান জানায় দুবাই বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। এ ছাড়া টার্মিনালে বুকিং সুবিধা না থাকায় বিমান সংস্থাগুলোর সঙ্গে যাত্রীদের যোগাযোগ করার অনুরোধ জানানো হয়। গতকাল পর্যন্ত দুবাই ছেড়ে যাওয়া যাত্রীদের জন্য চেক-ইন স্থগিত করে এমিরেটস। এতে বিমানবন্দরে ব্যাপক বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। ভোগান্তিতে পড়ে যাত্রীদের অনেকেই বিমানবন্দরের লাউঞ্জ ও মেঝেতে অবস্থান করেন।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) নানা জায়গায়ই নজিরবিহীন বৃষ্টি ও আকস্মিক বন্যা হয়েছে। এতে সারা পৃথিবীর নানা প্রান্তের যাত্রীরা বিপাকে পড়েন। এয়ার অ্যারাবিয়ার জি ৯-৫২৬ ফ্লাইটটির প্রায় ১৫০ যাত্রী ওমরাহ শেষে মদিনা থেকে চট্টগ্রাম ফেরার পথে গত মঙ্গলবার রাত ৯টা থেকে শারজাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ট্রানজিটে আটকে রয়েছেন। তারা ফ্লাইটের জন্য অপেক্ষা করছেন। যাত্রীরা ওমরাহ হজ শেষ করে দেশে ফিরছিলেন। পথিমধ্যে শারজাহতে এসে তারা সমস্যার মুখে পড়েন। এদিকে যাত্রীদের কাউকে হোটেল বুকিং দেওয়া হয়নি।

ইউএইর দুবাই, শারজাহ, আজমান ও আবুধাবির কিছু অংশে নজিরবিহীন বৃষ্টিতে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। গত ৭৫ বছরে এ ধরনের বৃষ্টির নজির সে দেশে নেই। আবহাওয়া অধিদপ্তর সর্বোচ্চ ২৫৪ মিলিমিটার পর্যন্ত বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে। এই পরিমাণ বৃষ্টি দেশটিতে দুই বছরে হয়ে থাকে। দেশটির শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, অফিস ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান স্থবির হয়ে পড়েছে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত