সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

গরমে মধু খাবেন নাকি খাবেন না?

আপডেট : ১৮ মে ২০২৪, ০৩:০৫ পিএম

মধু যেমন সুস্বাদু, তেমনি এর পুষ্টিগুণ। সুস্বাস্থ্যের জন্য মধু অত্যন্ত উপকারী। এ ছাড়া ওজন নিয়ন্ত্রণে অনেকেই প্রতিদিন সকালে মধুর সঙ্গে লেবু পানি পান করেন। এ ছাড়া রক্তশূন্যতা, অনিদ্রা, লিভার পরিষ্কার রাখাসহ রূপচর্চাতেও মধু উপকারী।

গরমে মধু খাবেন কিনা?

কেউ কেউ সর্দি-কাশি নিরাময়ে ঘরোয়া টোটকা হিসেবে মধু খান। তবে অনেকেই মনে করেন, গরমকালে বেশি মধু খেলে দেহের তাপমাত্রা বেড়ে যেতে পারে। একান্ত জ্বর-সর্দি-কাশি কিংবা সংক্রমণজনিত কোনো সমস্যা না হলে গরমে মধু খাওয়া নাকি ভাল নয়। তবে পুষ্টিবিদদের মতে, সব সময়ই মধু খাওয়া যায়। হালকা গরম পানিতে সারা বছর মধু খাওয়ার অনেক উপকারিতা রয়েছে বলছেন তারা।

জেনে নিন হালকা গরম পানিতে মধু খাওয়ার উপকারিতা।

১. হালকা গরম পানিতে মধু মিশিয়ে খেলে বিপাকক্রিয়া উন্নত হয়। বিপাকহার ভাল হলে শারীরবৃত্তীয় কাজগুলিও সঠিক ভাবে সম্পন্ন হয়। ফলে ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে।

২. গরমে যা-ই খাচ্ছেন হজমে গোলমাল হচ্ছে? পুষ্টিবিদেরা বলছেন, খাবার খাওয়ার অন্তত পক্ষে আধা ঘণ্টা আগে হালকা গরম পানিতে সামান্য মধু মিশিয়ে খেলে হজম ভাল হয়।

৩. সংক্রমণজনিত জ্বর-সর্দি-কাশি থেকে রেহাই পেতে নিয়মিত মধু খেতে হবে। হালকা গরম পানিতে মধু দিয়ে খাওয়ার অভ্যাসে রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা ভাল হয়।

৪. শরীরে জমা ‘টক্সিন’ দূর করতে সাহায্য করে মধু। প্রতিদিন সকালে ঈষদুষ্ণ পানিতে মধু মিশিয়ে খেলে লিভার এবং কিডনির স্বাস্থ্যও ভাল থাকে।

৫. শরীরে জমা দূষিত পদার্থ বার হয়ে গেলে ত্বকও তার হারানো উজ্জ্বলতা ফিরে পায়। ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখতে, প্রদাহ কিংবা কোন ক্ষত নিরাময় করতেও মধু বিশেষ ভাবে সাহায্য করে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত