বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

পড়ার টেবিল কীভাবে গুছিয়ে রাখবেন

আপডেট : ১৫ জুন ২০২৪, ০২:২০ এএম

ঘরের কোণে একটা টেবিল, সেখানে পড়াশোনা থেকে অফিসের কাজ সবই চলে।  রোজকার ব্যবহারের ফলে প্রয়োজনীয়, অপ্রয়োজনীয় নানা জিনিসের অনেক স্তূপ জমে যায়। জমতে জমতে এমন অবস্থায় যায় যে প্রয়োজনে দরকারি জিনিসপত্র খুঁজে পাওয়া যায় না। তাই পড়ার বা ওয়ার্ক টেবিল যেটাই হোক না কেন কীভাবে গুছিয়ে রাখবেন জেনে নিন।

প্রথমে পড়ার টেবিল পরিষ্কার করে ফেলুন। টেবিলের ওপরে বা ড্রয়ারে, যেখানে যা জিনিস আছে, চোখ বন্ধ করে সরিয়ে ফেলুন সব। এরপর ভালো করে টেবিলটা মুছে পরিষ্কার করে নিন। এবার টেবিলে থাকা জিনিসপত্র বাছাই করে নিন। কোনটা আপনার দরকার। আর কোনটার প্রয়োজন নেই।

টেবিলের ওপর যদি কম্পিউটার থাকে তাহলে সেটা টেবিলের পুরো জায়গাটা জুড়ে না রেখে একপাশে রাখুন। যাতে কিছুটা জায়গা থাকে যেখানটা পড়া ও লেখার জন্য ব্যবহার করতে পারেন। একপাশে রাখতে পারেন একটা টেবিল ক্যালেন্ডার।

পড়ার টেবিলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো আলোর ব্যবহার। লেখা বা পড়ার জন্য যে জায়গাটা রেখেছেন তার পাশেই রাখুন একটা ছোট টেবিল ল্যাম্প। ফোল্ডেবল ল্যাম্প রাখলে কিছুটা জায়গাও বাঁচবে।

এরপর পেনসিল, পেন ও হাইলাইটারগুলোকে পেনস্ট্যান্ডে রাখুন। কার্ড, স্টিকি নোটস, ক্যালকুলেটর, স্টেপলার, পেপার ক্লিপ ইত্যাদির জন্য করতে পারেন আলাদা-আলাদা প্লাস্টিকের পেন স্ট্যান্ড। কাগজ ও ফাইল ভাগ করে রাখুন আলাদা ড্রয়ারে। রাখতে পারেন একটা ডেস্ক অর্গানাইজারও। এগুলোতে পড়ার টেবিলের প্রয়োজনীয় জিনিসগুলো রাখার মতো আলাদা-আলাদা খোপ করাই থাকে।

টেবলের পাশেই রাখুন ওয়েস্ট পেপার বাস্কেট। যখনই যে জিনিসটার প্রয়োজন ফুরিয়ে যাবে সেটা ফেলে দিন তাতে। তাহলে অপ্রয়োজনীয় জিনিসে টেবিলে ভরেও উঠবে না আর। টেবিলে অনেকটা সময় বসে থাকার কারণে একঘেয়েমি চলে আসতে পারে। এর জন্য এক কোণে ফোটো ফ্রেমে সাজিয়ে রাখুন প্রিয় কোনো ছবি, স্টিকি নোটে পছন্দের কোট লিখে আটকে রাখুন আর এক দিকে। জায়গা

থাকলে টবে ছোট্ট একটা ইনডোর প্ল্যান্টও রাখতে পারেন। পড়া বা কাজের টেবিলটা  বৈচিত্র্যপূর্ণ করে যদি সাজাতে পারেন তাহলে মনোযোগও বাড়বে অনেকটা।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত